অত্যন্ত ভারাক্রান্ত মন নিয়ে ঈদ করছি: ফখরুল

0
187

বিএনপি চেয়াপারর্সন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে বন্দী থাকায় অত্যন্ত ভারাক্রান্ত মন নিয়ে ঈদ পালন করতে হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, আমরা নামাজ পড়ে এবং কুরবানি দিয়ে প্রতিবার দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে সঙ্গে নিয়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনের জন্য আসি। আজকে অত্যন্ত ভারাক্রান্ত মন নিয়ে আমরা এখানে উপস্থিত হয়েছি। কারণ আমাদের চেয়ারপার্সন আজকে আমাদের মাঝে নেই। আমরা তার মুক্তির জন্য প্রার্থনা করেছি, যেন তিনি দ্রুত মুক্তি পান।

বুধবার ঈদের নামাজের পর বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে পুস্পার্ঘ অর্পণ শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় ফখরুল বিচারাধীন মামলা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের সমালোচনা করেন। বলেন, বিচারাধীন মামলা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের পর বিচারকদের নিরপেক্ষ রায় দেয়া সম্ভব হবে না। মূলত তথাকথিত বিচারের নামে বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে আবারও সাজা দেয়ার চেষ্টা চলছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলা চলাকালীন প্রধানমন্ত্রী আমাদের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দায়ী করে কথা বলেছেন। এটি প্রধানমন্ত্রীর নিয়মে পরিণত হয়েছে। সবকিছুর জন্য তাদেরকে দায়ী করেন।

তিনি বলেন, বিচারাধীন মামলা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এধরনের মন্তব্য প্রমাণ করে সরকার বিচার ব্যবস্থাকে দলীয়করণ করে রায়কে প্রভাবিত করতে চায়। এটি প্রমাণ করে তারা কোনো ন্যায়বিচারে বিশ্বাস করে না। তারা বিচারের আগে ঘোষণা দিয়ে রায়কে পুরোপুরি প্রভাবিত করছে।

ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দেয়ার পর তদন্তকারী কর্মকর্তারা নিরপেক্ষ তদন্ত করতে পারবেন না।  বিচারকরা সঠিক রায় দিতে পারবেন না। এভাবে তথাকথিত বিচারের নামে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে আবারও সাজা দেয়ার চেষ্টা চলছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা আব্বাস সহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

জিয়াউর রহমানের মাজারে পুস্পার্ঘ শেষ করে মহাসচিব মির্জা ফখরুলের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল কারাগারে বন্দী দলীয় চেয়ারপার্সনের সঙ্গে সাক্ষাত এবং ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here