আকতার বানু আলপনা: ভিন্ন ধর্মের প্রতি অশ্রদ্ধা এবং অসহিষ্ণুতার মূল কারণ সহনশীল মানসিকতা তৈরি না হওয়া

0
40

আমি প্রতিবার পূজার সময় সাজুগুজু করে মেয়েদের নিয়ে মণ্ডপে যাই পূজা দেখতে। অসংখ্য ধার্মিক মানুষ পরিপাটি হয়ে পরিবারকে সাথে নিয়ে এসে শ্রদ্ধাভরে দেবীদর্শন করে, অঞ্জলি দেয়। উৎসবের আনন্দের সাথে মানুষের আগামীর জন্য ভক্তিভরা শুভকামনা আমার ভালো লাগে। তবে আমি মণ্ডপে যাই আমার নিজের স্বার্থে। সেটা হলো, আমার মেয়েরা এসব দেখে অন্য ধর্মের সংস্কৃতি সম্পর্কে জানুক, অন্য ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোক, অন্য ধর্মের মানুষদের প্রতি আন্তরিক হোক। এগুলো স্বচক্ষে না দেখে শুধু বইতে পড়ে অর্জন করা কখনোই সম্ভব নয়।

আমি ছোটবেলায় বাড়ির আশপাশের সব মন্দিরে, শ্মশানে নিয়মিত গেছি। গির্জায়ও গেছি। সুযোগ পেলেই আমি আমার মেয়েদেরও এসব জায়গায় নিয়ে যাই। ছোটবেলা থেকে অন্যধর্মের উৎসব, ধর্মীয় আচারের সাথে সরাসরি সংস্রব না থাকলে হঠাৎ করে মানুষের মনে ধর্মীয় সহনশীলতা সৃষ্টি হয় না। যাদের মনে ধর্মীয় সহনশীলতা আছে, তাদের পক্ষে মূর্তি ভাঙা যেমন সম্ভব নয়, তেমনি মহানবী (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন বানানোও সম্ভব নয়। ভিন্ন ধর্মের প্রতি অশ্রদ্ধা এবং অসহিষ্ণুতার মূল কারণ আসলে নানা ধর্মের প্রতি সহনশীল মানসিকতা তৈরি না হওয়া, যেটা ছোটবেলা থেকে তৈরি করে দেবার দায় মূলত বাবা-মার। ফেসবুক থেকে: আকতার বানু আলপনা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here