আজারবাইজান-আর্মেনিয়ার যুদ্ধে অন্তত ২৩ জনের মৃত্যু, আহত শতাধিক

0
25

বিশ্ব জুড়ে যখন করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই, তার মধ্যে বিশ্বের এক প্রান্ত থেকে আসছে যুদ্ধের খবর।

ওই সংঘর্ষে অন্তত ২৩ জনের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে এসেছে। রবিবারই এই সংঘর্ষে আহত হয়েছে শতাধিক।

আল জাজিরার রিপোর্ট অনুযায়ী, ১৬ জন আর্মেনিয়ান বিচ্ছিন্নতাবাদীর মৃত্যু হয়েছে। দু’পক্ষেই হতাহত হওয়ার খবর এসেছে। আর্মেনিয়ায় এক শিশু ও এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে।

আজেরবাইজানে এক পরিবারের পাঁচ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে বলেও খবর।

দুটি দেশই একদা সোভিয়েত অন্তর্ভুক্ত ছিল। অবলুপ্ত সেই সোভিয়েতের আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সংঘর্ষ লেগেই গেল। বিশ্ব যখন কাঁপছে করোনাভাইরাসের মৃত্যু মিছিলে, তখন আরও এক মৃত্যুর গুহায় পরিণত হচ্ছে দুটি দেশের মধ্যে বিতর্কিত অংশ নাগোরনো-কারাবাখ এলাকা।

বিবিসি ও আল জাজিরার খবর অনুযায়ী, প্রবল সংঘর্ষ শুরু হয়েছে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে। বিবিসি জানাচ্ছে, যুদ্ধের শুরুতে প্রাথমিকভাবে মার খেয়েছে আজারবাইজান। প্রতিপক্ষ আর্মেনিয়ার হামলায় আজারবাইজানের কয়েকটি হেলিকপ্টার ও ট্যাংক বিধ্বস্ত হয়েছে। আল জাজিরার খবর,সংঘর্ষ ক্রমে বড় আকার নিয়েছে।

এদিকে সংঘর্ষ শুরু হতেই বিবৃতি দেয় রাশিয়া। মস্কোর তরফে জানানো হয়, উভয় দেশকে অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি করে শান্তিপূর্ণভাবে সমস্যা সমাধান করতে হবে। তবে এই আহ্বানে তেমন কর্ণপাত করেনি আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের সরকার।

বিবিসি জানাচ্ছে, এই দুটি দেশের সীমান্তে নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আর্মেনিয়া-আজারবাইজানের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সংঘাত চলছে। অঞ্চলটি আন্তর্জাতিকভাবে আজারবাইজানের স্বীকৃত। কিন্তু এর নিয়ন্ত্রণ করে আর্মেনিয়ান জাতিগোষ্ঠী।

গত কয়েক মাস ধরে এই জাতিগত সংঘাত বড়সড় আকার নিয়েছে। গত জুলাইতে আজারবাইজান-আর্মেনিয়া সীমান্তে ব্যাপক সংঘাত হয়। এতে দুই দেশের ১৭ সেনার মৃত্যু হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here