আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতকে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের

0
146

ন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতকে (আইসিসি) অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর বিচারের চেষ্টা করলেই এ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হবে। সাম্প্রতিক সময়ে যখন আইসিসি আফগান যুদ্ধে মার্কিন সেনাদের সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধের তদন্ত ও বিচার কাজ শুরু করতে পারে বলে জানিয়েছে। সে সময়ই যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন আদালতটিকে ‘অবৈধ’ বলে আখ্যায়িত করেন। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র তার দেশ ও দেশের নাগরিকের স্বার্থে সবকিছুই করবেন। সোমবার ওয়াশিংটনে রক্ষণশীল গ্রুপ ফেডারেলিস্ট সোসাইটির এক অনুষ্ঠানে এ আদালত নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

বোল্টন বলেন, আফগানিস্তান বা আইসিসির কোনো সদস্য দেশ যেহেতু ওই অভিযোগ করেনি, সুতরাং বিষয়টি এগিয়ে নেওয়ার প্রশ্ন অবান্তর। আইসিসির এ অপরাধ বিচারের এখতিয়ার আছে কি না তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। তিনি বলেন, সহিংস অপরাধের শাস্তি দেওয়ার ক্ষেত্রেও আইসিসি ব্যর্থ হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে সংবিধানের উপরে আর কোনো কিছুকে স্থান দেয় না, অতএব আন্তর্জাতিক আদালত একটি অপ্রয়োজনীয় বিষয়।

তিনি আরো বলেন, আইসিসিকে এ বিষয়ে কোনো ধরনের সহযোগিতা করা হবে না। প্রতিষ্ঠানটি ব্যর্থ হোক আমরা সেটাই চাই। এটি আদালত মৃত একটি প্রতিষ্ঠান। বোল্টনের বক্তবের প্রেক্ষিতে হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র সারা স্যান্ডার্স জানিয়েছেন, আইসিসির যে কোনো অযৌক্তিক পদক্ষেপ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক আর মিত্রদের রক্ষা করতে প্রয়োজনীয় সব কিছুই প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করবেন।

এদিকে, আইসিসির বিচারক, প্রসিকিউটরসহ সংশ্লিষ্টদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের আওতায় থাকা তাদের সম্পদ জব্দের নির্দেশ দেওয়া হতে পারে বলেও বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here