আয়কর ১০ শতাংশ করলে রাজস্ব দ্বিগুণ হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী

0
174

বাংলাদেশের আয়করের হার প্রতিযোগী দেশগুলোর তুলনায় অনেক বেশি জানিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল বলেছেন, করের হার যত কমবে রাজস্ব তত বাড়বে। বর্তমানে ৩০ শতাংশ হারে আয়কর নির্ধারণ করায় বেশিরভাগ লোককে করের আওতায় আনা যাচ্ছে না। অথচ বাংলাদেশের মধ্যম আয়ের জনসংখ্যা প্রায় সাড়ে ৪ কোটি। আয়করের হার ১০ শতাংশ করা হলে বর্তমানের থেকে দ্বিগুণ রাজস্ব আদায় হবে বলে মনে করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে জার্মান-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (বিজিসিসিআই) উদ্যোগে ‘উদিয়মান বাংলাদেশ: ব্যবসাবান্ধব নীতি ও পরিকল্পনা’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশিরা বিদেশে অর্থ বিনিয়োগ করছে। তিনি এমন কিছু পরিকল্পনা করছেন যেগুলো বাস্তবায়ন করলে বিদেশে বিনিয়োগকারিরা দেশের অর্থ দেশে ফিরিয় আনবে বিনিয়োগের জন্য।

জ্বালানি সমস্যার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, বিশ্বে যে পরিমাণ কয়লা মজুদ রয়েছে তা দিয়ে হয়তো আরো ১১৪ বছর চলা সম্ভব হবে। আর যে পরিমাণ তেল-গ্যাস মজুদ রয়েছে তাতে হয়তো সর্বোচ্চ ৬৯ বছর চলবে। তাই এখন থেকে বিকল্প গ্রীন জ্বালানি নিয়ে সবাইকে ভাবতে হবে। সরকার বিষয়টি খুব গুরুত্বসহকারে দেখছে।

বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) চেয়ারম্যান কাজী আমিনুল ইসলাম বলেন, ভিয়েতনাম ব্যবসা পরিবেশ সূচকে এক বছরে ১২ ধাপ উন্নয়ন করেছে। অথচ বাংলাদেশ অনেক পিছনে। এগুলো সমাধানের চেষ্টা চলছে। অবকাঠামো উন্নয়ন চলছে। আগামী এক মাসের মধ্যে হয়তো জ্বালানি সমস্যারও অনেকটা সমাধান হবে। তবে একটা সমস্যা থেকেই যাচ্ছে। এখনো দেশের রপ্তানির ৮২ শতাংশ পোশাক শিল্প থেকে আসে। উদ্যোক্তাদের এর বাইরে আরো কয়েকটি প্রতিযোগী খাত তৈরি করতে হবে।

বিজিসিসিআই সভাপতি ওমর সাদাত বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগে অন্যতম বাধা ব্যবসায়িক পরিবেশের সূচক। বিকল্প জ্বালানি হিসেবে এলএনজি আমদানি করা হচ্ছে। কিন্তু এর দাম অনেক বেশি। এছাড়া দেশের পুঁজিবাজার এখনো অপরিপক্ক। এই সমস্যা সমাধানে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করতে হবে। যাতে একজন উদ্যোক্তা ৫০ বছর ব্যবসা করার পরিকল্পনা নিয়ে বিনিয়োগ করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here