ইরাক ও জার্মানিতে মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে আকস্মিক সফরে ট্রাম্প

0
182

আকস্মিকভাবে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটি সফর করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। এর পরেই তিনি জার্মানিতে অবস্থিত মার্কিন সামরিক ঘাঁটি সফরে যান। এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে ইরাক। দেশটির আইনপ্রণেতারা ট্রাম্পের আকস্মিক সফরে নিন্দা জানিয়ে তার এতে ইরাকের সার্বভৌমত্ব লংঘন হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। বিবিসি

কোন পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ২৫ তারিখ খ্রিস্টীয় ‘বড় দিন’ উৎসবের রাতেই মার্কিন সেনাদের সাফল্য, ত্যাগ ও সেবার জন্য শুভেচ্ছা জানাতে ট্রাম্প ও মেলানিয়া ইরাক ও জার্মানি যান বলে হোয়াইট হাউজ বুধবার জানিয়েছে।

হঠাৎ এ সফরে ট্রাম্প তার বেশ কিছু পরিকল্পনার কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘সিরিয়ায় আমরা মাত্র ৩ মাসে জন্য গিয়ে এখন পর্যন্ত অবস্থান করা কোন নীতি নয়। সেখান থেকে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত সঠিক এবং খুব শীঘ্রই তা বাস্তবায়ন করা হবে। তবে ইরাক থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করা হবে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা আর পুলিশের ভূমিকায় থাকতে চাইনা। যেসব রাষ্ট্র আমাদের সৈন্য দিয়ে নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করছে অথচ বিনিময়ে আমাদের কোন অর্থ দিচ্ছে না তাদের আর সুবিধা নিতে দেয়া হবে না।’

ইরাক সফরের সময় দেশটির প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল মাহাদির সঙ্গে ট্রাম্প বৈঠকে বসার পরিকল্পনা ছিলো। কিন্তু মাহাদির আপত্তিতে ট্রাম্প ফোনেই কথা সেরেছেন এবং পরে বৈঠক বাতিল করা হয়। ইসলামিক স্টেট’র (আইএস) বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সেখানে মোট ৫ হাজার মার্কিন সৈন্য মোতায়েন রয়েছে।

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রে ফেরার পূর্বে জার্মানিতে মার্কিন সামরিক ঘাঁটি র‌্যামসটোনে তার ‘এয়ার ফোর্স ওয়ান’ অবতরণ করেন এবং সেনাদের বড় দিনের শুভেচ্ছা জানান। ট্রাম্পের মধ্যপ্রাচ্যনীতিতে বিরোধীতা করে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিসের পদত্যাগের পর সেনাদের ব্যক্তিগতভাবে শুভেচ্ছা জানাতেই তিনি ইরাক ও জার্মানির ঘাঁটি সফরে গেছেন বলে ট্রাম্প জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here