ইয়েমেন ইস্যুতে সৌদিকে সহায়তা কমানোর হুঁশিয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের

0
166

য়েমেনের বেসামরিক নাগরিকদের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে ব্যর্থ হলে সৌদি আরবকে সামরিক ও গোয়েন্দা সহায়তা কমানোর হুঁশিয়ারি বার্তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইয়েমেনে সৌদির সামরিক হামলায় শিশুসহ বেসামরিক নাগরিকদের হতাহত হওয়ার প্রেক্ষিতে এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলো ট্রাম্প প্রশাসন।

ওয়াশিংটন থেকে বলা হয়েছে, রিয়াদ যদি বেসামরিক নাগরিকদের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে কোনো তৎপরতা দেখাতে ব্যর্থ হয়, তবে ইয়েমেনে অভিযানে তারা আমেরিকার যে সামরিক ও গোয়েন্দা সহায়তা পাচ্ছে, তা কমিয়ে ফেলা হবে।

সৌদি বাহিনী ইয়েমেনের সুন্নিপন্থি সরকারের গদি রক্ষায় ‘ইরানের আশীর্বাদপুষ্ট’ শিয়াপন্থি হুথি বিদ্রোহীদের দমনের কথা বললেও প্রথম থেকেই সেখানে বিপুলসংখ্যক বেসামরিক মানুষের প্রাণহানির খবর মিলছে। এর সবশেষ নজির দেখা যায় গত ৯ আগস্ট। সেদিন সৌদির নেতৃত্বে আরব জোটের বোমা হামলায় একটি স্কুলবাসে থাকা ৪০ শিশু নিহত হয়, যাদের বেশিরভাগেরই বয়স ১৫ বছরের নিচে। যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি ওই বোমা স্কুলবাসে আঘাত করার পর থেকেই বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। সেই সমালোচনার বাইরে থাকলো না খোদ সৌদির মদতদাতা যুক্তরাষ্ট্রও।

মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের সদরদফতর পেন্টাগনের দুই শীর্ষ কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ইয়েমেন যুদ্ধে সৌদির কর্মকা-ে ওয়াশিংটন প্রশাসনে অসন্তোষ বাড়ছে। প্রতিরক্ষামন্ত্রী জ্যামস ম্যাটিস ও মার্কিন সামরিক বাহিনীর মধ্যপ্রাচ্য অপারেশন উইংয়ের প্রধান জেনারেল জোসেফ ভোটেল আলাদাভাবে তাদের উদ্বেগ জানিয়েছেন। সৌদির নেতৃত্বে বিমান হামলায় বিপুলসংখ্যক বেসামরিক মানুষের দায় নিয়েও মাথা ঘামাচ্ছেন তারা।
ওই দুই কর্মকর্তা বলেন, যুক্তরাষ্ট্র অনেক আগে থেকেই সৌদিকে বেসামরিক লোকজনের ক্ষয়ক্ষতি কমানোর জন্য কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে আসছে। কিন্তু এখন স্পষ্টতই মার্কিন কর্মকর্তাদের বিশ্বাস করতে হচ্ছে, তাদের পরামর্শ কাজে আসছে না। সূত্র: প্রেসটিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here