কষ্ট ক্ষণস্থায়ী, গর্ব চিরদিনের : জামাল ভূঁইয়া

0
294

লতি সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ‘এ’ গ্রুপের শেষ ম্যাচের আগে সেমিফাইনালের দৌড়ে সবার চেয়ে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশ। নেপাল-পাকিস্তানের যেখানে জয়ের পাশাপাশি মেলাতে হতো গোল ব্যবধানও, সেখানে বাংলাদেশের দরকার ছিল শুধুই একটি ড্র ।

কিন্তু শনিবারের ম্যাচটিতে এই ন্যুনতম ড্র করতে পারেনি বাংলাদেশ ফুটবল দল। নেপালের কাছে হেরে যায় ২-০ গোলের ব্যবধানে। এর আগে দিনের প্রথম ম্যাচে ভুটানের বিপক্ষে পাকিস্তান ৩-০ গোলে জয় পাওয়ায় ৬ পয়েন্ট থাকা স্বত্বেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যান ওয়ালি ফয়সাল, তপু বর্মনরা।
ম্যাচ শেষে হতাশা আঁকড়ে ধরে দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়কে। তবে সবচেয়ে বেশি হতাশ হন দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। ম্যাচ শেষে তাকাননি কোন দিকে। সোজা হেটে চলে যান ড্রেসিংরুমে। নির্লিপ্ত থাকেন ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনেও। টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়ার শোকে স্তব্ধপ্রায় হয়ে যান জামাল ভূঁইয়া। যার রেশ কাটতে অতিবাহিত হয়ে যায় প্রায় ১২ ঘণ্টারও বেশি সময়।

প্রাথমিক শোক কাটিয়ে রোববার দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের পেজে জামাল ধন্যবাদ জানান টুর্নামেন্ট জুড়ে সমর্থন দিয়ে যাওয়া ভক্ত-সমর্থকদের। একইসাথে পরবর্তীতে আরো কঠোর অনুশীলন করে ভালো ফলাফল আনার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

তিনি লিখেন, ‘গতকালকের পরাজয়ে আমরা সবাই অনেক বেশি হতাশ। আমরা সবাই আশা করছিলাম সেমিফাইনাল খেলবো। কিন্তু সৃষ্টিকর্তা সবকিছুর জন্যই ভিন্ন ভিন্ন পরিকল্পনা করে রেখেছেন। আমি আরো কঠোর অনুশীলন করবো এবং দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন করবো। আমাদের সবসময় সমর্থন দিয়ে যাওয়া শুভাকাক্সক্ষীদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। কষ্টটা ক্ষণস্থায়ী, গর্বটা চিরদিনের।’ জাগোনিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here