কাজের মেয়েকে পেটালেন গুয়াহাটির সহকারি হাইকমিশনার

0
236

গৃহ পরিচারিকাকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছেন ভারতের গুয়াহাটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ সহকারি হাইকমিশনার ড. শাহ মোহাম্মদ তানভীর মনসুর ও তার স্ত্রী মুনেরা আজম। টাঙ্গাইলের মধুপুরের আছিয়া বেগম (৫৭) নামের গৃহপরিচারিকার অবস্থা সঙ্কটজনক বলে জানাগেছে।

গুয়াহাটির সহকারি হাইকিশন অফিসের পাশে বসবাসরত একটি সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে। নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক বাংলাদেশ মিশনের এক কর্মকর্তা এমন ঘটনার তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র জানিয়েছে, দেশে ফিরতে চাওয়ায় গত বৃহস্পতিবার সহকারি হাইকমিশনার তানভীর মনসুর একটি রুমে আটকে বেধড়ক পেটান। এ সময় বয়স্ক ওই গৃহপরিচারিকাকে গলা টিপে ধরে মাটিতে ফেলে দেন এবং পেট ও বুকে লাথি মারেন। এতে গুরুতর আহত আছিয়া বেগমকে হাসপাতালে না নিয়ে হাইকমিশন অফিসেই চিকিৎসা দেওয়ারর পর পাশের একটি আবাসিক হোটেলে রাখা হয়।

গৃহপরিচারিকার চিৎকারে পাশের বাড়ির এক নারী স্থানীয় এক সাংবাদিক ফোনে বিষয়টি জানান। এরপর শনিবার স্থানীয় সাংবাদিকদের তৎপরার পর তাকে এক কর্মকর্তার বাসায় রাখা হয়েছে। রোববার তাকে দেশে পাঠানো হবে বলে জানাগেছে।

সূত্র জানায়, গুয়াহাটির আগে রাশিয়ার মস্কো মিশনে থাকার সময় সন্তানদের দেখাশোনার জন্য গৃহপরিচারিকা আছিয়া বেগমকে নিয়ে যান তারভীর মনসুর। কিন্তু তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে প্রায় দিনই আছিয়া বেগমকে নির্যাতন করেন তারভীর মনসুরের স্ত্রী মুনেরা বেগম। এ কারণে তিনি দেশে ফিরে আসতে চেয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার বিষয়টি নিয়ে কথাকাটাটির এক পর্যায়ে তারভীর মনসুর তাকে বেধড়ক পেটান।

তবে এ ঘটনা সত্য নয় বলে জানিয়েছেন গুয়াহাটিতে নিযুক্ত সহকারি হাইকমিশনার ড. শাহ মোহাম্মদ তানভীর মনসুর। তিনি এ প্রতিনিধিকে ফোনে জানিয়েছেন, এটি সম্পূর্ণ ভিত্তহীন ও বানোয়াট।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,গৃহকর্মীকে রেস্ট নেওয়ার জন্য হোটেলে রাখা হয়েছিল। আরেকজন কাজের মেয়ে আছে, সে থাকলে দুজন মিলে চুরি-টুরি করতে পারে এ জন্য পাশের হোটেলে রেখেছিলাম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here