খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে সংবিধানের বরখেলাপ করছে সরকার: মঈন খান

0
129

কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে জেলের ভেতরে ক্রমান্বয়ে নিঃশেষ করার ষড়যন্ত্র সম্পূর্ণ সংবিধানের বরখেলাপ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান বলেছেন।

সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলে।

মঈন খান বলেন, বেগম খালেদা জিয়া শুধু এদেশের নাগরিক নন, তিনি এদেশের তিন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, অথচ দুঃক্ষের বিষয় তাকে জেলের ভিতর ক্রমান্বয়ে নিঃশেষ করার ব্যবস্থা করা হয়েছে যা সম্পূর্ণ সংবিধানের বরখেলাপ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে ৫টি মৌলিক অধিকার সৃষ্টির দায়িত্ব হচ্ছে সরকারের। খাদ্য, অন্ন, বস্ত্র, শিক্ষা, চিকিৎসা, আবাসনের অধিকার প্রতিটি নাগরিকের উপর প্রযোজ্য কিন্তু সরকার তা না করে ২০১৪ সালের মতো নির্বাচনের প্রহশন করছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসা নিয়ে সরকার ছলচাতুরী এবং ধোঁকাবাজি নির্বাচন করতে দেব না। আমরা বেগম জিয়াকে মুক্ত করেই গণতন্ত্রের লড়ায়ে নামবো। এবং ৪র্থ বারের মতো প্রধানমন্ত্রী করবো।

এর আগে সকাল থেকেই জাতীয় প্রেসক্লাব মুখী নেতাকর্মীদের ঢল নামে। প্রেসক্লাবের আশেপাশেও নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়।নেতাকর্মীদের চাপে হাইকোর্টের কদম ফোয়াড়ার মোড় থেকে পল্টন পর্যন্ত রাস্তার একপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

‘জে‌লের তালা ভাঙব, খালেদা জিয়াকে আনব,’ ‘আমাদের মায়ের মুক্তি চাই’, ‘আমার নেত্রী আমার মা জেলে থাকতে দেবো না’, জিয়ার সৈ‌নিক এক হও লড়াই ক‌রো’, ‘খা‌লেদা জিয়ার কিছু হ‌লে জ্বল‌বে আগুন ঘ‌রে ঘ‌রে’ ইত্যাদি স্লোগান দেন নেতাকর্মীরা।

পূর্ব ঘোষিত এই মানববন্ধনে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের সিনিয়র নেতারা অংশগ্রহণ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here