খালের পানি থেকে দুই ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে মায়ের মৃত্যু

0
24


রংপুর নগরীর জুম্মাপাড়া মহল্লার কেডি খালে পড়ে মা ও ছেলের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

রংপুর সিটি করপোরেশনের ২৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরন্নবী ফুলু ও কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যাক্ষদর্শী পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,  কয়েকদিন আগে রংপুর নগরীতে ভয়াবহ বৃষ্টিতে নগরীর ৬০টি মহল্লাসহ হাজার হাজার বাড়ি-ঘর তলিয়ে গিয়েছিল। পানিবন্দি হয়ে পড়েছিলো লাখো মানুষ।

বৃষ্টি না হওয়ায় নগরীর বেশির ভাগ এলাকার পানি নেমে গেলেও নগরীর জুম্মাপাড়া এলাকায় কেডি খালের পানি এখনও ৭-৮ ফুট পানিতে তলিয়ে রয়েছে। এ ছাড়াও আশেপাশের শত শত বাড়ি-ঘর এখনও প্লাবিত হয়ে আছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর বারটার দিকে নিউ জুম্মাপাড়া করিমিয়া মাদরাসা পড়ুয়া নগরীর শালবন মিস্ত্রিপাড়া মহল্লার কাঁচামাল ব্যবসায়ী জমির উদ্দিনের ছেলে শফিকুল ইসলামকে মাদরাসায় দিতে  যাওয়ার পথে আলহেরা স্কুলের কাছে জলাবদ্ধতার কবলে পড়ে তারা।

এ সময় বড় ছেলে শফিকুল ইসলাম পিছলে কেডি খালে পড়ে যায়। সে পানিতে ডুবে গেলে তার ছোট ভাই রিপন ইসলাম বড় ভাইকে উদ্ধার করতে পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়লে সেও ডুবে যায়।

এ সময় মা রোকেয়া বেগম তার দুই ছেলেকে উদ্ধার করার জন্য খালের পানিতে ঝাঁপ দেয়। বড় ছেলে শফিকুল কোনও রকমে উঠতে সক্ষম হলেও মা রোকেয়া ও ছোট ছেলে রিপন পানিতে তলিয়ে যায়।

ঘটনার প্রায় এক ঘণ্টা পর এলাকাবাসী মা ও ছেলেকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের দু’জনকেই মৃত বলে ঘোষণা করে। তবে বড় ছেলে শফিকুলকে গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসন খাল পুনঃখননে কোনও পদক্ষেপ না নেয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।  স্থানীয় কাউন্সিলর নুরন্নবী ফুলু জানান, খালে পড়ে গিয়ে মা-ছেলের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সূত্র: আরটিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here