খুঁটি-ভাবমূর্তি-শক্তির সমন্বয়ে সম্মিলিত বিরোধী দল হচ্ছে?

0
191

নেকগুলো বিরোধী রাজনৈতিক দল ড. মোহাম্মদ ইউনুস এবং স্যার ফজলে হাসান আবেদ কে দেশের রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন আনার খুঁটি হিসেবে কাজে লাগাতে আশা করছেন। এই দুই বিশিষ্টজনের ব্যাপক আন্তর্জাতিক যোগাযোগ ও প্রভাব এবং এর পাশাপাশি বাংলাদেশের আনাচে কানাচে তাদের সাংগঠনিক কর্মী ও সমর্থকদের বিস্তৃতি বিরোধী রাজনৈতিক মহলে এই দুই ব্যক্তিত্বকে খুঁটি হিসেবে পেতে তীব্র আগ্রহী করেছে।

এছাড়া সম্মিলিত বিরোধী রাজনৈতিক জোটে পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক ভাবমূর্তির জন্য ড. কামাল হোসেন এবং ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরী কে জোটের কর্মসূচীতে সামনে রাখার প্রয়োজন বোধ করছেন এবং সেভাবেই সম্মিলিত বিরোধী দলসমূহ কে সংগঠিত করার কাজ চলছে।

প্রস্তাবিত সম্মিলিত বিরোধী দলগুলো একত্রিত হচ্ছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে উদ্দেশ্য করে কিন্তু প্রায় সবগুলো দলের সাংগঠনিক ও ভোটের শক্তি একবারেই নগণ্য বা অনুল্লেখযোগ্য তাই সেই শক্তির উৎস হিসেবে সম্মিলিত বিরোধী দলের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হবে বিএনপি। বিএনপিকে ছাড়া অপরাপর ছোট ছোট দলের ঐক্য কার্যকর বা প্রভাবশালী হতে পারবে না, এটা তারা উপলব্ধি করেন।

একটি বাম দলের শীর্ষ নেতাসহ সম্মিলিত বিরোধী দলের উদ্যোগী কয়েকজন সিনিয়র নেতার বিশ্বাস হচ্ছে বর্তমানে বেকায়দায় থাকা বিএনপি এখন সর্বোচ্চ ছাড় দিতে প্রস্তুত। এই অবস্থায় বিএনপিকে নিয়ে যদি তারা নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারে তাহলে কিছু গুণগত রাজনৈতিক সংস্কার সাধন করা সম্ভব হবে এবং দেশে বিরাজমান দ্বি-দলীয় রাজনৈতিক ধারার মধ্যে তৃতীয় এমনকি চতুর্থ শক্তিশালী রাজনৈতিক ধারা বেগবান করে গড়ে তোলা সম্ভব হবে। এই প্রত্যাশায় বর্তমানে অনাগ্রহী বামজোটও আগামী কিছুদিনের মধ্যে সম্মিলিত বিরোধী দলে সরাসরি যুক্ত হতে পারে অথবা অন্তত তাদের সাথে যুগপৎ রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণে সম্মত হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here