চলতি বছরেই রোহিঙ্গা সহায়তায় ৫৭ কোটি ৯০ লাখ ডলার প্রয়োজন

0
129

লতি বছরের শেষ নাগাদ কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জরুরী চাহিদা পূরণে আরও ৫৭৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন রোহিঙ্গা রেসপন্স কর্মসূচির প্রধান ‘আনিকা স্যান্ডল্যান্ড’।

রোহিঙ্গাদের জন্য চাহিদার তুলনায় প্রাপ্ত তহবিল আশঙ্কাজনকভাবে কম উলেখ্য করে তিনি আরো জানান, প্রাপ্ত তহবিল আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে শেষ হয়ে যাবে। এর ফলে জীবন রক্ষায় অপরিহার্য সব পরিসেবা কার্যক্রম পরিচালনা ঝুঁকির মুখে পড়বে। যৌথ সাড়া দান পরিকল্পনা বা জেআরপি’র চাহিদার মাত্র ৩৯ শতাংশ তহবিল পাওয়া গেছে এখন পর্যন্ত।

যদিও বর্তমানে বিশ্বের অনেক অঞ্চলে শরণার্থী সঙ্কট দীর্ঘায়িত হচ্ছে; এরপরও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন আনিকা স্যান্ডল্যান্ড।

মঙ্গলবার বাংলাদেশস্থ বিভিন্ন দেশের দূতাবাসের উচ্চ পর্যায়ের কূটনীতিকদের একটি দলের সফরসঙ্গী হিসেবে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনের পর তিনি এ মন্তব্য করেন।

শরণার্থী ও স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য টেকসই ও সম্পদের উপযোগী ব্যবহার নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সরকারকে দীর্ঘমেয়াদী সহায়তা দেওয়া প্রয়োজন। সেইসাথে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের অবিলম্বে নিরাপদ প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের উপর জরুরি ভিত্তিতে চাপ প্রয়োগের প্রয়োজন বলে মনে করছে জাতিসংঘ ও ত্রাণ সংস্থাগুলো ।

মঙ্গলবার রোহিঙ্গাদের সমস্যাগুলো সম্পর্কে সরাসরি জানতে অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, ডেনমার্ক, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, ফ্রান্স, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, নেদারল্যান্ডস, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, তুরস্ক, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করেছে। – ভয়েস অফ আমেরিকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here