চীনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ লেগে যাওয়ার আশঙ্কা করছে ফিলিপাইন

0
159

বাণিজ্যযুদ্ধ, দক্ষিণ চীন সাগর, তাইওয়ান ও মোবাইল কোম্পানি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এরই মধ্যে দেশ দুটি যুদ্ধে জড়িয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করেছে ফিলিপাইন। বিদ্যমান উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সামরিক চুক্তি সঙ্কার না করলে ফিলিপাইনও এই যুদ্ধে জড়িয়ে যেতে পারে বলে দেশটির প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন। সিএনএন, তাসখন্দপারপাজ

দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিং কৃত্রিম দ্বীপ নির্মাণ করে সেখানে সামরিক উপস্থিতি বাড়ানো অব্যাহত রাখায় উত্তেজনা গড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র পর্যন্ত। ওয়াশিংটন মিত্র দেশগুলোর সমর্থনে ও তাদের নিরাপত্তার খাতিরে সেখানে ইতোমধ্যেই বেশ কিছু যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন করেছে।

মার্কিন এই জাহাজগুলো নিয়ে চীনের সঙ্গে প্রায়ই ধাওয়া পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটছে। তাই এখানে যেকোন মূহুর্তে যুদ্ধ বেধে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে ফিলিপাইন আশঙ্কা করছে।

মঙ্গলবার ফিলিপাইনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ডেলফিন লরেঞ্জানা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রায় ৭ দশক আগের সামরিক চুক্তিটি পুনর্বিবেচনা করা উচিৎ। কারণ, এই চুক্তির সুযোগেই যুক্তরাষ্ট্র ফিলিপাইন বন্দরে জাহাজ নোঙ্গর করছে এবং দক্ষিণ চীন সাগরে টহল দিচ্ছে যা চীনের সঙ্গে ক্রমশ উত্তেজনা বৃদ্ধি করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে করা চুক্তিটি এখন মারাত্মক জটিলতায় রুপ নিয়েছে। কেননা, ফিলিপাইনের কারো সঙ্গে বিরোধ নেই। এবং ভবিষ্যতে ফিলিপাইন কারো সঙ্গে যুদ্ধেও যেতে চায় না। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র এই এলাকায় একটি যুদ্ধে জড়িয়ে যাওয়ার সমুহ সম্ভাবনা রয়েছে বলে লরেঞ্জানা মন্তব্য করেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবারও তাইওয়ান উপকূল দিয়ে মার্কিন বোমারু বিমান বি-৫২ উড়ে গেছে। এটি মার্কিন বিমান অভিযান পর্যবেক্ষণের অংশ হিসেবেই উড়ানো হয়েছে বলে মঙ্গলবার মার্কিন বিমান বাহিনীর প্রশান্তমহাসাগরীয় শাখা থেকে জানানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here