জাতীয় চার নেতা হত্যাকাণ্ডেও জিয়া জড়িত ছিলেন: তথ্যমন্ত্রী

0
43

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ অভিযোগ করেছেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড এবং তিন নভেম্বরের জেল হত্যা, দুটি ঘটনাতেই জিয়াউর রহমান জড়িত ছিলেন। মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) জেল হত্যা দিবসে তার সরকারি বাসভবনে একটি বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭৫ সালের এই দিনে জাতীয় চার নেতাকে কারাগারের অভ্যন্তরে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল। প্রকৃতপক্ষে ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা এবং ৩ নভেম্বরে জেল হত্যা, এই দুই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গেই জিয়াউর রহমান ওতপ্রোতভাবে জড়িত ছিলেন। কেননা, পরবর্তীতে আমরা দেখতে পাই, জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখলের আগে থেকেই খন্দকার মোশতাকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছিলেন।

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর খন্দকার মোশতাক আহমদ তার একান্ত বিশ্বস্ত বলেই জিয়াউর রহমানকে সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিল। পরে নিজে ক্ষমতা দখলের পর বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী ও ৩ নভেম্বরের হত্যাকারী সবাইকে পুনর্বাসিত করেন জিয়া। বঙ্গবন্ধু হত্যার পর ক্ষমতা নিষ্কণ্টক করা এবং স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে বাংলাদেশকে পেছনের দিকে ঠেলে দেওয়ার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই ৩ নভেম্বর হত্যাকাণ্ড সংঘটিত করা হয়েছিল।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, জেল হত্যার বিচার হয়েছে কিন্তু আসামিরা পলাতক থাকায় শাস্তি কার্যকর করা যায়নি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে এই অপরাধীদের মধ্যে যারা জীবিত আছে তাদের সবাইকে ফিরিয়ে এনে বিচার কার্যকর করা। পলাতক অপরাধীদের ফিরিয়ে এনে শাস্তি কার্যকর করলেই ন্যায় প্রতিষ্ঠা এবং অন্যায়ের প্রতিকার হবে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ নতুন উচ্চতায় উন্নীত হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এতে অনেকেই খুশি নন। আমাদের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিএনপিসহ তাদের দোসররা এবং একটি মহল যারা নিজেদের ভিন্ন পরিচয়ে উপস্থাপন করে, তারা এই অগ্রগতিতে খুশি নয়। দেশ রাজনৈতিকভাবে স্থিতিশীল বিধায় আমাদের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি হচ্ছে।

এই পরিবেশ নষ্ট করার জন্য তারা নানা ইস্যুকে কেন্দ্র করে গুজব রটিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করা ও দেশ-বিদেশ থেকে উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরির ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। গুজব রটনাকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকা এবং প্রয়োজনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরে আনার জন্য জনগণকে অনুরোধ জানান তথ্যমন্ত্রী।

এর আগে তথ্যমন্ত্রী দিবসটি স্মরণে আফসান চৌধুরী রচিত শেখ ‘মুজিবুর রহমান অ্যান্ড বাংলাদেশ: দ্যা কোয়েস্ট ফর এ স্টেট (১৯৩৭-১৯৭১)’, রাহাত মিনহাজ রচিত ‘১৯৭১: তাজউদ্দীন, মুজিববাহিনী ও অন্যান্য’ এবং শেখ আদনান ফাহাদ রচিত ‘বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক আদর্শ ও গণমাধ্যম ভাবনা’ গ্রন্থ তিনটি’র মোড়ক উন্মোচন করেন।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here