ঠান্ডা পানি কেন খাবেন না

0
163

প্রচণ্ড গরমে এক গ্লাস পানি খেলে প্রশান্তি পাওয়া যায়। তাই বলে হুটহাট করে একেবারে ফ্রিজ থেকে বের করেই বরফজমা ঠান্ডা পানি খাওয়া ঠিক নয়। শুধু গরম বলে নয়, আয়ুর্বেদশাস্ত্রে যেকোনো সময় ঠান্ডা পানি খাওয়ার বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে।

কাজ করে ক্লান্ত হয়ে অথবা বাইরে থেকে গরমে ঘেমে নেয়ে বিদ্ধস্ত হয়ে বাড়ি ফিরেই ফ্রিজ খুলে ফেলা ঠান্ডা পানি বের করে ঢক ঢক করে খেয়ে নেওয়া। বেশিরভাগ সময়ই আমরা এমনটাই করে থাকি। কিন্তু জানেন কি এ ভাবে ঠান্ডা পানি খেলে শরীরে মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে? আসুন এ বিষয়ে কিছু জরুরি তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি খেলে তার প্রভাবে রক্তনালী সঙ্কুচিত হয়ে পড়ে। শুধু তাই নয়, হজমের সময় যে সমস্ত পুষ্টিগুণ আমাদের দেহে মিশতে থাকে, তাও বাধাপ্রাপ্ত হয়। ফলে হজমের মারাত্মক সমস্যা হতে পারে।

খাওয়ার পরে ঠান্ডা পানি খাওয়া একেবারেই উচিত নয়। কারণ, এর ফলে শ্বাসনালীতে শ্লেষ্মার অতিরিক্ত আস্তরণ তৈরি হয় যা থেকে সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।

অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি খেলে দাঁতের ভেগাস নার্ভের উপর মারাত্মক প্রভাব পড়ে। এই ভেগাস স্নায়ু হল আমাদের স্নায়ুতন্ত্রের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। বেশি ঠান্ডা পানি খেলে ভেগাস স্নায়ু উদ্দীপিত হয়ে ওঠে। যার ফলে হৃদগতি অনেকটাই কমে যেতে পারে।

শরীরচর্চা বা ওয়ার্কআউটের পর ঠান্ডা পানি একেবারেই খাওয়া উচিত নয়। কারণ, ওয়ার্কআউটের পর দেহের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে অনেকটাই বেড়ে যায়। এই সময় ঠান্ডা পানি খেলে তা দেহের তাপমাত্রার সঙ্গে বাইরের পরিবেশের তাপমাত্রার সামঞ্জস্য রাখতে পারে না। ফলে হজমের সমস্যা দেখা দিতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ওয়ার্কআউটের পর যদি সামান্য গরম পানি খাওয়া যায়, তবে উপকার পেতে পারেন।

সুতরাং, আজ থেকেই বদলে ফেলুন এ ভাবে ঠান্ডা পানি খাওয়ার অভ্যাস। না হলে একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যা একে একে বাসা বাঁধতে পারে আপনার শরীরে।চ্যানেল 24

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here