ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার অধিকার পুলিশের হাতে ন্যস্ত করা হয়েছে: সাকি

0
208

ণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেছেন, স্বাধীন সাংবাদিকতার সকল সুযোগ এই আইন রুদ্ধ করবে। একদিকে সরকার আইন করছে ফৌজদারি আইনেও সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের অনুমতি ছাড়া গ্রেফতার করা যাবে না, অন্যদিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তল্লাশির পরওয়ানা ছাড়াই যে কাউকে গ্রেফতার ও তল্লাশী করার অধিকার পুলিশের হাতে ন্যস্ত করা হয়েছে। রোববার গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি গণসংহতি আন্দোলনের দলীয় কার্যালয়ে এসব কথা বলেন।

জোনায়েদ সাকি বলেন, গণমাধ্যমের প্রধান দায়িত্ব- সরকারি প্রতিষ্ঠানে কোন দুর্নীতি, অনিয়ম ও গণবিরোধী কিছু ঘটলে জনগণের সামনে তা উন্মোচন করা। অফিসিয়াল সিক্রেসী অ্যাকটে মায়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে, সেই আইন আরও ভয়াবহ পরিমাণে বেশি শাস্তির বিধানসহ চালু করা হচ্ছে বাংলাদেশে। জামিন পাওয়ার মৌলিক মানবাধিকারকেও ক্ষুণ্ন করা হয়েছে। এই আইন আগে থেকে কার্যকর থাকলে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোতে দুর্নীতি, ক্রেস্টের সোনার জালিয়াতি কিংবা ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার সচিব পদে পদোন্নতির মতো সংবাদগুলো প্রকাশ করা সম্ভব হতো না বলে গণমাধ্যমের সম্পাদকরা জানিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের পূর্বসূরী ৫৭ ধারায় এখনো গ্রেফতার আছেন শহীদুল আলম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মাইদুল ইসলাম, ৫৪ দিন ধরে আটক আছেন ছাত্র ফেডারেশন নেতা মারুফ হোসেন। হয়রানির শিকার হয়েছেন আরও অনেকে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে এই গণবিরোধী আইন বাতিলের দাবি জানান।

আগামী ৩ অক্টোবর বুধবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গণসংহতি আন্দোলনের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া ৬ অক্টোবর শনিবার এই বিষয়ে একটি গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে মনি সিংহ-ফরহাদ ট্রাস্টের মুনীর-আজাদ মিলনায়তনে। এই কর্মসূচিসমূহ সফল করতে গণমাধ্যমসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন দলের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য ফিরোজ আহমেদ, তাসলিমা আখ্তার, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বাচ্চু ভূঁইয়া, মনিরউদ্দিন পাপ্পু ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য দীপক রায় প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here