ডোপ টেস্ট কেলেঙ্কারিতে বড় শাস্তি পেতে যাচ্ছেন কাজী অনিক

0
23

সন্দেহবশত পরীক্ষার মুখে দাঁড়িয়েছিলেন বাংলাদেশের তরুণ পেসার কাজী অনিক। ব্যস, তাতেই বড় শাস্তি পেতে হচ্ছে তাকে। ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ার দায়ে লম্বা সময়ের জন্য ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হতে পারে। আসন্ন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার ড্রাফট শুরুর ঠিক আগ মুহূর্তে  বাদ পড়েছিলো অনিকের নাম। তখন জানা যায় তার ডোপ পাপের কথা।

সদ্য শেষ হওয়া জাতীয় ক্রিকেট লিগেও ( এনসিএল) খেলতে পারেননি ঢাকা মেট্রোর এই পেসার। এ ব্যাপারে এতদিন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড মুখে কুলুপ এটে রাখলেও অবশেষে মুখ খুলেছেন দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। ক্রিকবাজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নান্নু জানান, এনসিএলের সময়েই তারা জেনেছিলেন অনিকে এই ডোপ কেলেঙ্কারির বিষয়ে। তারপরই ক্রিকেট বোর্ড থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল তাকে এনসিএলসহ সকল টুর্নামেন্ট থেকে প্রত্যাহার করার।

নান্নুর ভাষায়, ‘এনসিএল চলাকালীনই আমরা মেডিকেল টিমের মাধ্যমে জানতে পারি, তার ডোপ টেস্টে ফলাফল পজিটিভ এসেছে। তখনই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, এনসিএলের পরবর্তী ম্যাচগুলো আর তাকে খেলতে দেয়া হবে না। তারপর আমরা বিপিএলের প্লেয়ার ড্রাফট তালিকা থেকেও তার নাম বাদ দিই।’

অনিকের কেলেঙ্কারির শাস্তি হিসাবে বিসিবির অ্যান্টি-ডোপিং আইনের ১০.৩.২ ধারার ২.৪ অনুচ্ছেদ অনুসারে দুই বছর ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে। তবে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বোর্ড চাইলে সর্বনিম্ন এক বছরের শাস্তি হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here