ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীহলেও আসন সংকট চরমে, ৮ জনের রুমে ২০ জন

0
17

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের আবাসিক হলগুলোতে কমবেশি গণরুম ব্যবস্থা রয়েছে। যদিও ছাত্রদের হলের চেয়ে ছাত্রীদের হল সংখ্যা কম।এদিকে ছাত্রীসংখ্যার তুলনায় আসন কম থাকায় তীব্র আবাসন সংকট রয়েছে ছাত্রীদের আবাসিক হলগুলোতেও। অর্ধেকের মতো ছাত্রীই তাই বাধ্য হয়ে অনেক বেশি খরচ করে রাজধানীর বিভিন্ন মেসে থাকেন। যদিও এসব মেসে রয়েছে নিরাপত্তাহীনতা।

চলতি বছর প্রকাশিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর স্মরণিকা ও হল সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত ছাত্রীসংখ্যা ১৩ হাজারের বেশি। অথচ পাঁচটি ছাত্রী হল ও দুটি ছাত্রী হোস্টেলে আসন আছে প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের প্রথম আবাসিক হল রোকেয়া হলে আসন রয়েছে এক হাজার ৬১৮টি। এ ছাড়া কবি সুফিয়া কামাল হলে এক হাজার ৬২৬টি, শামসুন নাহার হলে ৬৮৮টি, কুয়েত মৈত্রী হলে ৬৬১টি, ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলে ৪১০টি এবং নবাব ফয়জুন্নেসা ছাত্রী হোস্টেলে ১২০টি ও লেদার টেকনোলজি ইনস্টিটিউটের ছাত্রীদের আবাসনের জন্য নির্মিত সুলতানা কামাল হোস্টেলে ১৫০টি আসন রয়েছে।
ছাত্রীদের হলগুলোয় যেসব গণরুম রয়েছে, সেগুলোয় আটজন থাকার কথা। কিন্তু বাস্তবে থাকছেন অন্তত ২০ থেকে ২৫ জন। ফলে বিছানা ভাগাভাগি ও বদলাবদলি করেই থাকতে হয় সবাইকে। রুমে পড়াশোনা করার পরিবেশ নেই, সুযোগও নেই। তাদের তাই পড়াশোনা করতে হয় রিডিং রুম কিংবা অতিথি রুমে। ছাত্রীরা জানান, হলের গণরুমে উঠতে হলে যে কোনো একজনের রেফারেন্সের মাধ্যমে আসতে হয়। পড়াশোনা দূরে থাক- ঠিকমতো ঘুমানোও যায় না, প্রাইভেসিও নেই একদম; তার পরও গণরুমের বিকল্প নেই, বিশেষত নতুনদের কাছে।

রোকেয়া হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক জিনাত হুদা ওয়াহিদ বলেন, ‘আবাসন সমস্যা দূর করার জন্য সবচেয়ে জরুরি হলের সংখ্যা বাড়ানো।’
কুয়েত মৈত্রী হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মাহবুবা নাসরিন বলেন, ‘গণরুম ও আবাসন সমস্যার সমাধান করতে হলে যাদের ছাত্রত্ব নেই এবং যাদের রেজাল্ট হয়ে গেছে, তাদের হল ত্যাগ করার নিয়ম কঠোরভাবে পালন করতে হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, গণরুম ও আবাসন সংকট দূর করতে কিছু উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ছাত্রীদের আবাসন সমস্যাও কর্তৃপক্ষের নজরে রয়েছে। গণরুম দীর্ঘদিনের পুঞ্জীভূত সমস্যা- দিনক্ষণ বেঁধে এর সমাধান করা সম্ভব নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here