তফসিল ঘোষণার দিন থেকেই চূড়ান্ত আন্দোলন শুরু : বিএনপি

0
160

কাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার দিন থেকেই চূড়ান্ত আন্দোলন শুরুর পরিকল্পনা বিএনপির। দলের নীতিনির্ধারকেরা বলছেন, দাবি আদায়ের এই কর্মসূচি হরতাল-অবরোধে রূপ নেবে কি-না নির্ভর করছে সরকারের আচরণের ওপর। আর তা সফল করতে তৃণমূলে কমিটি গঠনসহ নতুন কৌশলের কথাও ভাবছেন তারা।

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ভোটের দাবিতে দশম সংসদ নির্বাচনেও রাজপথে ছিলো বিএনপি। তবে লাগাতার হরতাল-অবরোধেও আদায় হয়নি দাবি। এবার নির্বাচনের আগ মুহূর্তে নির্দলীয় সরকারের সঙ্গে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আন্দোলনের পরিকল্পনা দলটির।

আর এই কর্মসূচি সফল করতে এরই মধ্যে তৃণমূলসহ নানা পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মত নিয়েছেন জ্যেষ্ঠ নেতারা। শুরু করেছেন ভোটকেন্দ্র ভিত্তিক কমিটি গঠনের কাজ। এছাড়া, ২০ দলীয় জোটের আন্দোলনে সমমনা দলগুলোকে ঐক্যবদ্ধের জোর তৎপরতা চলছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সাধারণ মানুষ আন্দোলন দেখতে চায়, আন্দোলনে অংশ গ্রহণ করতে চায়। যেকোন মুহূর্তে যেকোন বিস্ফোরণ ঘটা স্বাভাবিক। হরতাল-অবরোধ বাংলাদেশের সংবিধানের আওতাভুক্ত। এটা সংবিধান বহিঃভূত না।

বিএনির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, যারা গণতন্ত্রকামী, মুক্তিকামী দল তারা কিন্তু আজকে একত্রিত হচ্ছে এবং একই কথা বলছে।

পাশপাশি বিএনপির সহযোগী অঙ্গ-সংগঠনের নেতাদের সঙ্গেও বৈঠক করছে কেন্দ্র। রাজধানীতে সফল আন্দোলন গড়তে দেয়া হচ্ছে মনোযোগ। এবার ব্যর্থ হওয়ার কোন কারণও দেখছেন না তারা।

বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী বলেন, আন্দোলন শুরু হয় শান্তি পূর্ণভাবেই। শেষ হয় স্বাভাবিক কারণে একটি অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে অস্বাভাবিক রূপ নেয়। সুতরাং বুঝতেই পারছেন আন্দোলন কী ধরনের হতে পারে।

বিএনপির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী বলেন, সামনের দিনে আন্দোলন আরো বেগবান হবে। স্বৈরাচারের শুধু পতন নয়, ইতিহাসের কলঙ্ক জনক নির্মম পতন হবে শেখ হাসিনার।

গণ দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত সে আন্দোলন চলমান থাকবে বলেও জানিয়েছেন বিএনপির নীতিনির্ধারকেরা। সূত্র: ইন্ডিপেনডেন্ট টিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here