তাইজুল-নাঈমের শেষ বিকালের ঝলকে স্বস্তিতে বাংলাদেশ

0
155

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের বর্ণনা হতে পারে কেবল মুমিনুল হককে ঘিরেই। তবে শেষ বিকালে তাইজুল আর নাঈম হাসানের হার না মানা ৫৬ রানের পার্টনারশীপও ৩১৫ রানের ইনিংস গড়তে দারুণ ভূমিকা রেখেছে। ২৫৯ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে যখন বাংলাদেশ ধুঁকছিলো, তখন এই জুটি ত্রাতা হয়েই ক্রিজে আবির্ভুত হল।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে সাকিববাহিনী। ইনিংসের শুরুটা যাচ্ছে তাই। দলীয় ১ রানের মাথায় কেমার রোচকে মোকাবিলা করতে গিয়ে সৌম্য সরকার ব্যাটে এমন খোঁচা মারতে চাইলেন যে, বল উইকেট কিপারের হাতেই ধরা।

কী আর করা, সোজা প্যাভেলিয়নের পথ ধরে দীর্ঘশ্বাস ফেললেন সৌম্য বাবু। ওয়ান ডাউনে খেলতে নামা মুমিনুল জুটি বাধলেন ইমরুল কায়েসের সঙ্গে। এই জুটি বড় স্কোর গড়ার স্বপ্ন দেখাকে শুরু করলেন। প্রথম উইকেট হারানোর হতাশা কাটিয়ে মুমিনুল হক সৌরভ যেনো মাঠ থেকে গ্যালারিতে সৌরভ ছড়াতে শুরু করেন। ১৬৭ বলে ১২০ রান করে শুধু সৌরভ ছড়ালেন না, একের পর এক কির্তীও গড়লেন এই সেঞ্চুরিয়ান।
এই সেঞ্চুরিতে যেমন বিশ্বের বর্তমান এক নম্বর ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলির পাশে বসেছেন, তেমনি ছাড়িয়ে গেছেন শচীন টেন্ডুলকার, জ্যাক হবস, হাবার্ট সাটক্লিফ, গ্যারফিল্ড সোবার্স, সুনীল গাভাস্কারদের মতো কিংবদন্তিদের। ক্যারিয়ারে মুমিনুলের এটি অষ্টম সেঞ্চুরি। বাংলাদেশের হয়ে তার সমান সেঞ্চুরি আছে কেবল ওপেনার তামিম ইকবালের।

২০১৮ সালে এটি মুমিনুলের চতুর্থ সেঞ্চুরি। চলতি বছর টেস্টে মুমিনুল ছাড়া চারটি সেঞ্চুরি আছে আর শুধুই ভারতের বিরাট কোহলির। চারজন ব্যাটসম্যানের দুটি করে সেঞ্চুরি থাকলেও অন্য কারো তিনটি সেঞ্চুরিও নেই।

টেস্টের প্রথম দিনের শেষ দিকে তাইজুল ইসলাম ও নাঈম হাসানের লড়াকু পার্টনারশিপে আট উইকেটে ৩১৫ রান সংগ্রহ করে প্রথম দিন পার করেছে বাংলাদেশ। দিনটি পুরোপুরি বাংলাদেশের হতে পারতো।

কিন্তু চা বিরতির পরপরই মাত্র ১৩ রানের ব্যবধানে চারটি উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে চাপে ফেলেন ক্যারিবীয় পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। টাইগার ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক ১২০ রান করে আউট হন। এদিন ইমরুল ৪৪, সাকিব আল হাসান ৩৪ রান করেন। তবে দিন শেষে তাইজুল ইসলাম ৩২ রান করে ও নাঈম হাসান ২৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের মধ্যে ৬৯ রান দিয়ে ৪টি উইকেট শিকার করেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। এছাড়া জোমেল ওয়ারিকান ২টি উইকেট শিকার করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here