তাহেরীর কিশোর গ্যাংবিরোধী সভায় পুলিশের হানা

0
67

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশি বাধায় পণ্ড হয়ে গেছে ইসলামী বক্তা মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরীর মাদক ও কিশোর গ্যাংবিরোধী সভা।

বুধবার  বেলা ১১টার দিকে সদর উপজেলার মাছিহাতা ইউনিয়নের চাপুইর গ্রামে সভাস্থলে গিয়ে সভা বন্ধ করে দেয় পুলিশ।

এতে করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন সভায় আগতরা। যদিও, তাহেরীর দাবি করোনাভাইরাসের কারণে ছোট পরিসরেই সভার আয়োজন করা হয়েছিল।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চাপুইর গ্রামে মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরীর বাসভবনের সামনে খোলা জায়গায় ‘দাওয়াতে ঈমানী বাংলাদেশ’ নামের একটি সংগঠন মাদক ও কিশোর গ্যাংবিরোধী সভার আয়োজন করে। তাহেরী নিজেই এ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। সভায় মাছিহাতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল আমিনুল হক পাভেল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল। পুলিশ সভা বন্ধ করে দেওয়ায় চেয়াম্যান সভাস্থলে আসেননি।

বেলা ১১টায় সদর মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহরাব হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল সভা বন্ধ করতে বলে। করোনাভাইরাসের কারণে গণজমায়েত করা যাবে না বলে জানান এসআই সোহরাব। এ ঘটনায় সভায় আগতদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের এলাকায় মাদক এমনভাবে ছড়িয়ে পড়েছে, যার জন্য মাদকবিরোধী সভা করা খুবই প্রয়োজন মনে করেছি। যে কিশোররা পড়ালেখা করে দেশ ও জাতির কল্যাণ করবে, তারা কিশোর গ্যাং তৈরি করছে। তাদরকে সচেতন করার জন্য এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে মাদক ও কিশোর গ্যাংবিরোধী সভার আয়োজন করে ছিলাম। 

তিনি আরও বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে আমরা ছোট পরিসরে আয়োজন করেছিলাম। কিন্তু প্রশাসন থেকে নিষেধ করা হয়েছে। প্রশাসন আমাদের আশ্বস্ত করেছে-পরবর্তীতে তারাও এ অনুষ্ঠানে থাকবে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহরাব হোসেন জানান, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারিভাবে গণজমায়েত নিষিদ্ধ রয়েছে। সেজন্য তাহেরীর সভা বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে। সূত্র: আরটিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here