থাকলে কন্যা সুরক্ষিত, দেশ হবে আলোকিত’

0
178

জ (১১ অক্টোবর) বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস। ২০১২ সালের ১১ অক্টোবর প্রথম এই দিবস পালিত হয়। লিঙ্গ বৈষম্য দূর করা এই দিবসের অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য। এ বছরের কন্যা শিশু দিবসের প্রতিপাদ্য ‘থাকলে কন্যা সুরক্ষিত, দেশ হবে আলোকিত’। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নারীর পথকে আরো সুগম করতে হলে সমাজে কন্যা শিশুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

অতীতের নানা কুসংস্কার ও বাধা পেরিয়ে কন্যা শিশুর গুরুত্ব বাড়ছে। শিক্ষা, খেলা-ধুলাসহ নানা ক্ষেত্রেই এখন এগিয়ে যাচ্ছে নারীরাও। তবে যুগের সাথে কন্যা শিশুদের গুরুত্ব বাড়লেও সামজিক দৃষ্টিভঙ্গি বদলায়নি এখনও আর তাই এখনও প্রতিপদে সহিংসতার শিকার হতে হয় কন্যা শিশুদের।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি আয়েশা খানম বলেন, ‘কন্যাশিশুদের জন্য একটা নিরাপদ ভবিষ্যৎ তৈরি করা, নিরাপদ জীবন তৈরী করা। আমি এখানেই যে জায়গাটাতে একটু জোর দেব, সরকারের নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে মাল্টি সেক্টরাল অ্যাপ্রোচে যে কাজ হচ্ছে, সেই কাজে কিন্তু সুফল কতটা আসছে- সেটা আমাদের মূল্যায়ণ করা দরকার।’

কন্যা শিশু দিবসে মহিলা ও শিশু প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকী জানান, শিক্ষা ক্ষেত্রে প্রতিটি কন্যা শিশুর নিরাপত্তা নিশ্চিতই তাদের মূল লক্ষ্য।

তিনি আরো বলেন, ‘কণ্যা শিশু দিবসের যে মূল প্রতিপাদ্য, সেটি হলো স্কুলে যেন শিশুরা নিরাপদে লেখাপড়া করতে পারে। নিরাপত্তার বিষয়টা পরিবার থেকে সমাজ তো বটেই, সরকারও বিশেষভাবে দেখছে।’ সূত্র: সময় টিভি, বাংলা উইকিপিডিয়া

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here