দশম-দ্বাদশে নিয়মিত ক্লাস, বাকিদের সপ্তাহে একদিন

0
43

দেশে করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হওয়ায় ফেব্রুয়ারির শুরুতে খুলছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে প্রথমদিকে সব শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সরাসরি ক্লাসে অংশ নিতে পারবেন না। প্রাথমিকভাবে দশম-দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত চলবে নিয়মিত ক্লাস। আর অন্যান্য শ্রেণিতে পাঠদান চলবে সপ্তাহে একদিন।  

আজ রোববার জাতীয় সংসদে পরীক্ষা ছাড়া এইচএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশের বিধান করতে বিদ্যমান আইন সংশোধনের প্রস্তাব উত্থাপনকালে এ কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘অন্যান্য শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে একদিন ক্লাস করে পুরো সপ্তাহের পড়া নিয়ে যাবে। পরের সপ্তাহে আবার একদিন আসবে। আপাতত এভাবেই চলবে তাদের পাঠদান।’

ডা. দীপু মনি বলেন, ‘৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীর সংখ্যা অনেক হওয়ায় চলমান পরিস্থিতিতে তাদের গাদাগাদি করে বসানো সম্ভব হবে না। সেক্ষেত্রে সব শ্রেণির শিক্ষার্থীদের একসঙ্গে প্রতিষ্ঠানে আনার সুযোগ থাকবে না।’

তিনি বলেন, ‘এ বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা এক বছর সরাসরি ক্লাস করতে পারেনি। অনলাইন ও টিভিতে অনেকে ক্লাস করেছে। আবার কিছু শিক্ষার্থী একেবারেই ক্লাস করেনি। তাই এ বছরের জন্য সংক্ষিপ্ত সিলেবাস করা হয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে যদি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া যায়, তাহলে পরে কয়েক মাস সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের ওপর পাঠদান শেষে পরীক্ষা নেওয়া যাবে।’

এদিন উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে পরীক্ষা ছাড়া ফলাফল প্রকাশ এবং পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হওয়ার পথে বিদ্যমান আইনি বাধা দূর করতে উত্থাপিত তিনটি বিল সংসদে পাস হয়েছে। 

বিলটি পাস হওয়ায় চলমান পরিস্থিতিতে উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ নিয়ে জটিলতার অবসান হয়েছে। শিগগিরই গেজেট প্রকাশের মাধ্যমে সেই ফল প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। 

এর আগে শিক্ষান্ত্রণালয় সম্পর্কি স্থায়ী কমিটি বিল তিনটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংসদে অনুমোদনের সুপারিশ করে। গত বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা বিল তিনটির প্রতিবেদন সংসদে উপস্থাপন করে তা পাসের সুপারিশ করেন।  

উত্থাপিত বিল তিনটি হচ্ছে- ইন্টারমিডিয়েট এন্ড সেকেন্ডারি এডুকেশন (সংশোধন) বিল, ২০২১, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড (সংশোধন) বিল, ২০২১ এবং বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড (সংশোধন) বিল, ২০২১।

বিদ্যমান আইন অনুযায়ী পরীক্ষা নেওয়ার পর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল দেওয়ার বিধান রয়েছে।  সংশোধিত বিলে পরীক্ষা ছাড়াই বিশেষ পরিস্থিতিতে ফল প্রকাশের সুযোগ রাখা হয়েছে। গত ১৯ জানুয়ারি (মঙ্গলবার) শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সংসদে বিল তিনটি উত্থাপন করেন।

সূত্র: একুশে টেলিভিশন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here