নষ্ট রাজনীতির প্রবর্তক ড. কামাল হোসেন: কাদের

0
143

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নষ্ট রাজনীতির প্রবর্তক হচ্ছেন ড. কামাল হোসেন। শনিবার (১৫ ডিসেম্বর) ফেনীতে সাংবাদিকদের তিনি বলেনদ, সাংবাদিকদের ‘খামোশ’ বলে পুরোনো পাকিস্তানি ভাষা ব্যবহার করছেন ড. কামাল হোসেন। বয়স বাড়ায় তিনি এখন বেসামাল।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বেপরোয়া চালকের মতো আচরণ করছেন ড. কামাল।

প্রসঙ্গ, শুক্রবার শহীদ বুদ্ধিজীবীদের শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াতে ইসলামীকে নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্ন শুনে ক্ষেপে যান জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেন।

শুক্রবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কামাল বলেন, স্বাধীনতার স্বপ্নকে বাস্তবায়নের বিরুদ্ধে যারা কাজ করছে, লোভ-লালসা নিয়ে লুটপাট করছে, তাদের হাত থেকে এই দেশকে মুক্ত আমরা করবই। যত শক্তিধর হোক তারা, দেশের মালিক জনগণের কাছে তাদের নত হতে হবে, তাদের পরাজয় হবেই।

সাংবাদিকরা এ সময় স্বাধীনতার বিরোধিতাকারী দল জামায়াতে ইসলামীর বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ড. কামাল বলেন, শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে তিনি এসব বিষয়ে কোনো কথা বলবেন না। এরপরও সাংবাদিকরা প্রশ্ন করতে থাকেন। একজন বলেন, জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল হয়েছে। তারপরও তারা ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে নির্বাচন করছে।

৮১ বছর বয়সী ড. কামাল এ সময় ক্ষেপে ওঠেন। তিনি বলেন, প্রশ্নই ওঠে না। বেহুদা কথা বলো। কত পয়সা পেয়েছ এই প্রশ্নগুলো করতে? কার কাছ থেকে পয়সা পেয়েছ? তোমার নাম কী? জেনে রাখব তোমাকে। চিনে রাখব। পয়সা পেয়ে স্মৃতিসৌধকে অশ্রদ্ধা কর তোমরা। আশ্চর্য!

পাশে থাকা দু-একজন নেতা সে সময় কামাল হোসেনকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু আরেকজন সাংবাদিক এ সময় প্রশ্ন চালিয়ে গেলে ধমকে ওঠেন কামাল। বলেন, শহীদদের কথা চিন্তা কর। হে হে হে হে করছ! শহীদদের কথা চিন্তা কর। চুপ কর। চুপ কর। খামোশ। পরে ড. কামাল প্রশ্ন করেন, ‘আশ্চর্য! তোমার নাম কী? … কোন পত্রিকার? … টেলিভিশন, জেনে রাখলাম।

এদিকে শনিবার সকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জামায়াতে ইসলামী নিয়ে প্রশ্ন করায় সাংবাদিকদের সঙ্গে মেজাজ হারানোর ঘটনার দুঃখ প্রকাশ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here