নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানিতে তেমন সাড়া মেলেনি-মেয়র

0
178

নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি দেওয়ার ব্যাপারে নগরবাসীর তেমন সাড়া মেলেনি বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন। নির্ধারিত স্থানের বাইরে পশু কোরবানি দেওয়ায় মেয়রের কণ্ঠে ছিল হতাশা।

আজ বুধবার দুপুরে ধোলাইখাল–সংলগ্ন কাউয়ারটেক পশুর হাটে কোরবানি পশুর বর্জ্য অপসারণ কাজের উদ্বোধন করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন। আগে থেকেই ঘোষণা ছিল, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রাজধানীর কোরবানি পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হবে। ঘোষণা অনুযায়ী বেলা ২টা থেকে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ শুরু করেছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

উদ্বোধন শেষে মেয়র সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা প্রায় ৬০২টির মতো নির্ধারিত স্থান করে দিয়েছি। পর্যাপ্ত ব্যবস্থাপনাও ছিল। কিন্তু এ পর্যন্ত আমরা সেভাবে নগরবাসীর সাড়া পাইনি। আমরা তারপরও সম্মানিত নাগরিকদের অনুরোধ জানাচ্ছি, আমাদের ব্যবস্থাপনা রয়েছে, আপনার নির্ধারিত স্থানে পশু জবাই দিন।’

সাঈদ খোকন বলেন, পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দুই সিটি করপোরেশন এলাকার কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হবে। বর্জ্য অপসারণে নগরবাসীর সহযোগিতা চেয়ে তিনি বলেন, ‘কোথাও কোনো ধরনের বর্জ্য পড়ে থাকতে দেখলে আপনারা আমাদের নির্ধারিত কল সেন্টারে ফোন করে জানাবেন। আমাদের নম্বর হচ্ছে ০৯৬১১০০০৯৯৯। মেয়র বলেন, ‘গত বছর আমরা প্রায় ২০ হাজার টন বর্জ্য অপসারণ করেছি। এবারও এ পরিমাণ বর্জ্য অপসারণ করার জন্য আমাদের সার্বিক প্রস্তুতি রয়েছে। দুই সিটি করপোরেশন ঘোষিত সময়ের মধ্যে পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দেবে।

অন্যদিকে একই সময়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ২ নম্বর ব্রিজের কাছে পশুর হাটের বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। সেখানে ডিএনসিসির প্যানেল মেয়র জামাল মোস্তফা বলেন, ‘আমরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সব বর্জ্য অপসারণ করব। আমাদের কার্যক্রম সঠিক নিয়মেই হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘আমি নগরবাসীর কাছে আবেদন জানাতে চাই আপনাদের সচেতনতা এবং সার্বিক সহযোগিতার মধ্যে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণের মধ্য দিয়ে একটি পরিচ্ছন্ন নগরী ঢাকাবাসীকে উপহার দিতে চাই।

-প্রথম আলো

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here