নির্বাচনী কাজে ব্যবহার হচ্ছে গণভবন; অভিযোগ ঐক্যফ্রন্টের

0
160

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পরেও গণভবন, মন্ত্রীদের বাসভবন, সরকারি অফিস রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ব্যবহার করা হচ্ছে এমন অভিযোগ তুলেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলোনায়নতে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিজোগ করেন ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা অ্যাডভোকেট সব্রত চৌধুরী।

নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে কথা বলতে গণফোরাম এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে৷

সুব্রত চৌধুরী বলেন, গণভবন, মন্ত্রীদের বাসভবন, সরকারি অফিস রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে ব্যবহার করা হচ্ছে। যা আচরনবিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন (১৪(১), (১৪)(২)) হওয়া স্বর্তেও নির্বাচন কমিশন নিরব ভূমিকা পালন করছে৷

কামাল হোসেনের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, নির্বাচনকালীন সময়ে দেশের প্রসাশন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নির্বাচন কমিশনের পুরোপুরি কর্তৃত্বের মধ্যে থাকলেও আজ অবধি প্রশাসনিক কর্মকর্তা, নির্বাচনী কর্মকর্তা ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আইন বহির্ভূতভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী বিরোধী পক্ষের উপর হাজার হাজার হামলা-মামলা ও গ্রেফতার বাড়াবাড়ি তল্লাশি অব্যাহত রেখেছে। এমনকি নির্বাচনে যারা প্রার্থী হবেন তাদেরকেও উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশনায় মামলা ও গ্রেফতার করা হচ্ছে।

এখনো নির্বাচনী পরিবেশ তৈরি করতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। নিরপেক্ষতা প্রমাণ করতে না পারলে সিইসিকে পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর আহবান ড. কামাল হোসেনের। বলেন, পুলিশ কোন সরকারের বাহিনী নয়, পুলিশ রাষ্ট্রের বাহিনী।বিচার বিভাগকে ব্যবহার করে জামিনে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করা হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বলেন, সরকারি দলের প্রার্থী এবং মন্ত্রীদের দাপটের সাথে নির্বাচনী প্রচার ও ভোটারদের কাছে তাদের বক্তব্য তুলে ধরা হচ্ছে।

নির্বাচনী কাছে মন্ত্রীদের আইনশৃঙ্খলাবাহিনী ও প্রশাসন তাদের প্রটোকলসহ সার্বিক সহযোগিতা করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আর বিরোধীদলের প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ঠিক উল্টো কাজ করা হচ্ছে। যেমন, কর্মীদের সাথে নিজ এলাকায় বৈঠক পর্যন্ত করতে দেয়া হচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন গণফোরামের সভাপতি ও ঐক্যফ্রন্টের প্রধান নেতা ড. কামাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহাসিন মন্টু, প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ প্রমুখ।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, কৃষক শ্রমিক জনতালীগের সভাপতি বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকী, সাবেক ছাত্রনেতা সুলতান মাহামুদ মনসুর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here