নির্বাচনের আগেই বই ছাপার কাজ শেষের তাগিদ

0
240

আগামী শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যবই ছাপার কাজ পুরোদমে শুরু হয়েছে। নির্বাচনের আগেই বই ছাপার কাজ শেষ করার তাগিদ দিয়েছে এনসিটিবি। আগামী শিক্ষাবর্ষের জন্য ৩৫ কোটি ২২ লাখ কপি পাঠ্যবই ছাপা হচ্ছে। ইতোমধ্যে প্রায় পৌনে সাড়ে তিন কোটি কপি বই উপেজলা পর্যায়ে সরবরাহ করা হয়েছে বলে এনসিটিবি সূত্রে জানা গেছে। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে নিম্নমানের কাগজ ব্যবহারের তথ্য পেয়েছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) কর্মকর্তারা। একই অভিযোগে তিনটি প্রতিষ্ঠানে প্রায় ১২ হাজার কপি পাঠ্যবই বাতিল করে নতুন ছাপানোর ও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এনসিটিবি চেয়ারম্যান প্রফেসর নারায়ন চন্দ্র সাহা এই প্রতিবদেককে জানান, মানসম্মত বই পেতে সংস্থার চেয়ারম্যান, সদস্য ও অন্যান্য কর্মকর্তারা নিয়মিত সারাদেশের ছাপাখানা পরিদর্শন করছেন। দুএকটি প্রতিষ্ঠাণের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ এসেছে। তাদের নতুন বই ছাপার ওন্য বলা হয়েছে। যাদের বইয়ে ভুল-ত্রুটি বা মান খারাপ হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।

এনসিটিবি জানায়, আগামী শিক্ষাবর্ষে সারাদেশের চার কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৮৬৫ জন শিক্ষার্থীর জন্য বিনামূল্যের পাঠ্যবই ছাপা হচ্ছে। প্রাক-প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত মোট বইয়ের সংখ্যা ৩৫ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৮৮২ কপি। এসব বই ছাপাতে দেশি-বিদেশি প্রায় তিন’শ ছাপাখানার (প্রিন্টার্স) সঙ্গে চুক্তি করে কার্যাদেশ দিয়েছে এনসিটিবি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ২৪ সেপ্টেম্বর ‘শ্যাডো’ নামের একটি ছাপাখানা পরিদর্শনে গিয়ে প্রায় ৫ হাজার নিম্নমানের পাঠ্যপুস্তক পাওয়া যায়, এছাড়াও ‘এসএস প্রিন্টার্স’ ও ‘অনুপম’ নামের আরও দুটি প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৭ হাজার বই বাতিল করে নতুন করে ছাপাতে বাধ্য করেছে এনসিটিবি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here