‘নির্বাচনে কারচুপির পূর্ণ সুযোগ পায় ক্ষমতাসীনরা’

0
129

লেখক ও ব্লগার পিনাকী ভট্টাচার্য ফেসবুকে লিখেছন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবাদ সন্মেলনে বলেছেন- ইভিএম নিয়ে বিএনপি অনেক বেশি সোচ্চার। কারণ বিএনপি কারচুপির মাধ্যমে জয়ী হতে পছন্দ করে। ব্যালট পেপারে নির্বাচন হলে একেকজন একাধিক ভোট দিতে পারে, তখন বিএনপির নেতা-কর্মীরা কারচুপির মাধ্যমে ব্যালট বাক্স ভরাতে পারে। মাগুরা, ঢাকা-১০ আসনের মতো নির্বাচন করতে চায় বিএনপি।

প্রধানমন্ত্রীর এমন কথার প্রেক্ষিতে পিনাকী তার ফেসবুকে আরো লিখেছেন, কারচুপি কখন হয়? ক্ষমতার বাইরে থেকে কারচুপি করতে পারে কেউ? মাগুরা আর ঢাকা ১০ এর তথাকথিত নির্বাচনের সময়ে কি আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ছিলো নাকি বিএনপি ক্ষমতায় ছিলো? তাই মাগুরা আর ঢাকা ১০ এ কোন দল কারচুপি করেছিল তার চাইতে গুরুত্বপূরর্ণ প্রশ্ন হচ্ছে ক্ষমতাসীন দল কারচুপি করেছিলো কিনা।

কারচুপির পূর্ণ সুযোগ পায় সবসময়েই ক্ষমতাসীনেরা। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ধারণা আওয়ামী লীগ সেই কারণেই এনেছিলো। এখনকার নির্বাচনের কারচুপি কি বিএনপি করছে? সারা দেশের মানুষেরা দেখছে না? তাই আজকে বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময়ে কী করেছে সেটার উদাহরণ না দিয়ে ক্ষমতাসীন দল কীভাবে কারচুপিতে লিপ্ত হবেনা সেটা নিয়ে আমাদের আলাপ করা উচিত।

বাংলাদেশের বড় পলিটিক্যাল পার্টিগুলো কেউই দুধে ধোয়া নয়। তাই ও খারাপ আমি ভালো, দেশের মানুষের কাছে এই ধরনের কথার কোন আবেদন আছে কি?

যারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে তারা কিভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করবেনা বা তাদের প্রভাবিত করার কোন সুযোগ থাকবে না সেই ব্যবস্থা করাটাই বাংলাদেশের মানুষের আকাক্সক্ষা।

ভারতে ইভিএমে ভোটে জালিয়াতি হয়েছে বলে ব্যাপক অভিযোগ আছে। ইভিএমে ভোট জালিয়াতি সম্ভব, তা প্রমাণিতও হয়েছে। এটা নিয়ে পশ্চিমেও নানা কনসার্ন আছে। সেই ইভিএম নিয়ে শাসক দলের ব্যাপক আগ্রহকে জনগণ এবং অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সন্দেহের চোখে দেখা অযৌক্তিক নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here