নেতাকর্মীর অভাব নেই, অভাব শুধু ভোটারের

0
159

‘আপা, আপনি কি সাথে করে ন্যাশনাল আইডি কার্ড এনেছেন? সোজা গিয়ে বাঁয়ে মহিলা ভোটকক্ষ। আইডি কার্ড দেখালেই ভোট দিতে পারবেন।’

শনিবার সকাল ১০টায় ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে নিউমার্কেটের অদূরে সমাজ কল্যাণ গবেষণা ইনস্টিটিউট ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে আসেন শাহনাজ বেগম নামের একজন গৃহবধূ ভোটার।

ইনস্টিটিউটে প্রবেশদ্বারের পাশেই ফুটপাতে গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে আগত ভোটারদের ভোটার তালিকা দেখে ভোটদানে সহায়তার জন্য আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. শফিউল ইসলামের একটি নির্বাচনী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। রিকশা থেকে নেমেই শাহনাজ বেগম ল্যাপটপ নিয়ে বসে থাকা একজনের কাছে ভোট দিতে কি করতে হবে জানতে চাইলে তিনি শাহনাজকে ওপরের এ পরামর্শ দেন।

election-1.jpg

সকাল ৯টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হলেও নির্বাচনী এ ক্যাম্পটিতে প্রার্থীর পোস্টার ও সেখানে চেয়ারটেবিল নিয়ে বসে থাকা নেতাকর্মীদের ভিড় ছাড়া বোঝার কোনো উপায় নেই অদূরেই উপনির্বাচনের ভোট চলছে। অন্য কোনো প্রার্থীকে প্রকাশ্যে ক্যাম্প করে বসে থাকতে দেখা যায়নি। অন্যান্য নির্বাচনে গোলযোগ এড়াতে কেন্দ্রের আশপাশে পুলিশি পাহারায় থাকতে দেখা গেলেও আজ পুলিশি টহল দেখা গেল না। নেতাকর্মীদের চাতক পাখির মতো ভোটার আসার অপেক্ষা করতে দেখা গেছে, কিছুক্ষণ পর পর দু-চারজন ভোটার আসতে দেখা যায়। ভোটাররা এলেই নেতাকর্মীরা সালাম দিয়ে কোথায় কিভাবে ভোট দিতে হবে সে পরামর্শ দিচ্ছেন। কোনো কোনো নেতা ভোট কেন্দ্রের বাইরে দাঁড়িয়ে মোবাইল ফোনে পরিচিত ভোটারদের কেন্দ্রে নিয়ে আসার জন্য কর্মীদের নির্দেশ দিচ্ছেন।

নেতাকর্মীরা জানান, করোনা ভীতিতে ভোটার উপস্থিতি খুবই কম। দলের পক্ষে নির্বাচনের জন্য তারা নিজেরাও সমাবেত হয়ে করোনা সংক্রমিত হওয়ার দুশ্চিন্তায় রয়েছেন বলে জানান।

election-1.jpg

উল্লেখ্য, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ১৪, ১৫, ১৬, ১৭, ১৮ ও ২২ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে এ সংসদীয় আসন গঠিত। এই আসনের মোট ভোটার তিন লাখ ১২ হাজার ২৮১ জন। নির্বাচনে মোট ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১১৭টি এবং ভোটকক্ষের সংখ্যা ৭৭৬।

এই আসনে ৬ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগ থেকে মো. শফিউল ইসলাম, বিএনপির শেখ রবিউল আলম, জাতীয় পার্টির হাজী মো. শাহজাহান, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের কাজী মুহাম্মদ আবদুর রহিম, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের নবাব খাজা আলী হাসান আসকারী এবং বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. মিজানুর রহমান। সূত্র:জাগোনিউজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here