পরিবর্তন হলো পবিত্র কা’বার গিলাফ, আরাফায় যাচ্ছেন হজযাত্রীরা

0
220

সৌদি আরবের স্থানীয় সময় আজ ৯ জিলহজ্ব। হজযাত্রীরা হজের সবচেয়ে বড় রোকন আরাফার ময়দানে অবস্থানের বিধান পালন করবেন। এ উদ্দেশ্যে তারা মিনা থেকে ফজর নামাজ পড়ে আরাফার ময়দানের দিকে রওনা করেছেন। জোহর নামাজের আগেই তারা সেখানে যেয়ে পৌঁছাবেন। এছাড়া সোমবার  সকালেই পরিবর্তন করা হয়েছে পবিত্র কা’বা শরীফের গিলাফ। নবী মুহাম্মদ সা. এর নির্দেশক্রমে প্রতিবছরই আরাফা দিবসে এ গিলাফ পরিবর্তন হয়ে থাকে।

এদিকে রোববার মক্কায় প্রবল বাতাসের ফলে পবিত্র কাবা ঘরের গিলাফ (কিসওয়া) উড়ে যায়। আকস্মিক ধূলিঝড়ের কারণে এ গিলাফ উড়ে যায় বলে আল আরাবিয়া জানিয়েছে। সাধারণত ৯ জিলহজ আলাফার দিনে কাবা ঘরের গিলাফ পরিবর্তন করে নতুন গিলাফ লাগানো হয়ে থাকে। সে হিসেবে আজ গিলাফ পরিবর্তন করা হয়েছে।

এ বছর গিলাফটি তৈরি করা হয়েছে ৬ শ’ ৭০ কিলোগ্রাম খাঁটি রেশম, একশো বিশ কিলোগ্রাম স্বর্ণ দ্বারা। সর্বমোট ব্যা হয়েছে ২ মিলিয়ন রিয়াল। আনুমানিক দুই ঘণ্টা এ পরিবর্তন কাজ অব্যাহত ছিল।

প্রসঙ্গত, কাবাকে আবৃত করে রাখা কাপড়টিকে বলে কিসওয়া বা গিলাফ। কাবা শরিফের দরজা ও বাইরের গিলাফ দুটোই মজবুত রেশমি কাপড় দিয়ে তৈরি করা হয়। প্রতিবছর দুটি করে (একটি সতর্কতামূলক) গিলাফ তৈরি করা হয়। হাতে তৈরি করতে সময় লাগে আট থেকে নয় মাস। অন্যটি মেশিনে মাত্র এক মাসে তৈরি করা হয়।

মাগরিবের সময় প্রচণ্ড ধূলিঝড় শুরু হলে তাবুতে অবস্থানরত হাজযাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা যায়। এসময় হজযাত্রীরা সমস্বরে সূরা কেরাত পড়তে শুরু করে। ধূলিঝড়ের ধূলি কণা তাবুতেও ঝাপটে পড়ে। সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয় আরাফার ময়দান।

তবে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬.৫০ মিনিটে শুরু হওয়া ধূলিঝড় রাত প্রায় ১০ টা ৩০ মিনিটের দিকে থেমে যায়। বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১০টায় হজযাত্রীদের নিরাপদে অবস্থান করার জন্য মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়। ঘোষণায় হাজীদের পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত তাবুতে অবস্থান করতে অনুরোধ করা হয়।

সরকারের পক্ষ থেকে নাগরিক, পর্যটক ও মদিনা জিয়ারতকারীদেরকে সকর্তভাবে চলাফেরার জোরালো পরামর্শ দেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক নোটিশে সব হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে যেকেনো পরিস্থিতির জন্য সদা প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।

সূত্র: আরব নিউজ, আল আরাবিয়া

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here