পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রয়োজন হলেই রেড জোন ঘোষণা

0
56

স্থানীয় পর্যায়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে যখনই প্রয়োজন হবে তখনই সেই এলাকাকে রেড জোন হিসেবে ঘোষণা দিয়ে লকডাউন করা হবে। জোনভিত্তিক লকডাউন নিয়ে বিভ্রান্তি নিরসনে মঙ্গলবার (১৬ জুন) এক সরকারি তথ্য বিবরণীতে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, রেড জোন ঘোষণা বা রেড জোন পরিবর্তন একটি চলমান প্রক্রিয়া। স্থানীয় পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়েই যখন প্রয়োজন তা করা হবে এবং স্থানীয় কর্তৃপক্ষ তা বাস্তবায়ন করবে। এই বিষয়ে সকলের বিভ্রান্তি নিরসন হওয়া প্রয়োজন।

তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়, কেন্দ্রীয় কারিগরি গ্রুপ অব্যাহতভাবে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত ব্যবহার করে এলাকাভিত্তিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করছে এবং অধিকতর বাস্তবমুখী সংজ্ঞা ও বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া নির্ধারণের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সেই অনুযায়ী ঢাকা সিটি করপোরেশনসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সংজ্ঞানুযায়ী যেখানে যখন প্রয়োজন তখন রেড জোন ঘোষণা করা হবে।

করোনা মোকাবিলায় বেশি আক্রান্ত এলাকাকে রেড (লাল), অপেক্ষাকৃত কম আক্রান্ত এলাকাকে ইয়েলো (হলুদ) ও একেবারে কম আক্রান্ত বা আক্রান্ত-মুক্ত এলাকাকে গ্রিন (সবুজ) জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। রেড জোনকে লকডাউন করা হবে, সেখানে থাকবে সাধারণ ছুটি। ইয়োলো জোনে যেন আর সংক্রমণ না বাড়ে সেই পদক্ষেপ নেয়া হবে। সতর্কতা থাকবে গ্রিন জোনেও। লকডাউনের মেয়াদ হবে ১৪ থেকে ২১ দিন পর্যন্ত।

উল্লেখ্য, করোনা প্রতিরোধে গঠিত জাতীয় টেকনিক্যাল কমিটি ঢাকায় ৪৫টি এলাকাকে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ বা রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করে তা লকডাউনের সুপারিশ করেছে। এর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২৮টি এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ১৭টি এলাকা রয়েছে। অপরদিকে চট্টগ্রামের ১০টি এলাকাও রয়েছে। আরটিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here