পুতিন বন্দনায় রুশ টিভিতে সিরিয়াল প্রচার শুরু

0
318

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির ভ্লাদিমিরোভিচ পুতিনের প্রশংসায় টেলিভিশনে অনুষ্ঠান প্রচার শুরু করেছে দেশটির সরকার নিয়ন্ত্রিত টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর একটি রোসিয়া ১। অনুষ্ঠানের প্রচারিত প্রথম পর্বে পুতিনের শারীরিক গঠন ও শিশুদের প্রতি মমতার প্রশংসা করা হয়েছে। মজা করে মন্তব্য করা হয়েছে, পুতিনকে দেখলে ভাল্লুকও তার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করবে। উল্টোপাল্টা কিছু করার মতো বোকা নয় ভাল্লুকরা। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান জানিয়েছে, গত রবিবার প্রাইম টাইমে প্রচারিত এক ঘণ্টার অনুষ্ঠানটির নাম ‘মস্কো ক্রেমলিন পুতিন।’
সাইবেরিয়ায় পুতিন অবসরের বয়স সংক্রান্ত নতুন আইনের কারণে রুশ নাগরিকরা সরকারের ওপর ক্ষুব্ধ। নতুন আইনে পুরুষদের অবসরের বয়স নির্ধারণ করা হয়েছিল ৬৫ বছর, আর নারীদের ৬৩ বছর। রাশিয়ানরা এই ব্যবস্থা মেনে নিতে রাজি নয়। বিক্ষোভের মুখে পুতিন নারীদের অবসরের বয়স ৬৩ করে দিলেও পুরুষদের অবসরের বয়স ৬৫তেই রেখেছেন। বর্তমানে রুশ নারীরা অবসরে যান ৫৫ বছর বয়সে। আর পুরুষদের অবসরে যাওয়ার বয়স ৬০ বছর। পুতিন বন্দনায় অনুষ্ঠানটি এমন এক সময় প্রচারিত হলো যখন দেশটির হাজার হাজার মানুষ রেড স্কয়ারে অবসর ভাতা সংক্রান্ত নতুন আইনের বিরুদ্ধে আয়োজিত প্রতিবাদ কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছে। রাশিয়ার নাগরিকদের প্রতিবাদ চলার কোনও খবর না দিয়ে অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ভ্লাদিমির সোলোভিভে মন্তব্য করছিলেন, ‘পুতিন যখন কোনও শিশুর মায়ের সঙ্গে কথা বলেন বা কোনও শিশুর দিকে তাকান তখনই বোঝা যায় তিনি শিশুদের কতটা পছন্দ করেন। শিশুদের প্রতি তিনি খুবই মানবিক।’ এর জবাবে সেটে উপস্থিত থাকা ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, ‘পুতিন শুধু শিশুদের ভালোবাসেন তা-ই নয়, তিনি সব মানুষকে ভালোবাসেন।’

অনুষ্ঠানে সাইবেরিয়ার তুভাতে ছুটি কাটাতে যাওয়া পুতিনের কর্মকাণ্ডের ভিডিও দেখানন হয়েছে। সাইবেরিয়ার ওই অঞ্চলের বিষয়ে উপস্থাপক বলেছেন, ‘এটাই হলো বন্য প্রকৃতি। এখানে ভাল্লুক রয়েছে।’ জবাবে পেসকভ বলেছেন, ‘দেহরক্ষীদের হাতে নিয়ম অনুযায়ী অস্ত্র আছে। তবে ভাল্লুক যদি পুতিনকে দেখে তাহলে তারা যথাযথ আচরণই করবে, তারা বোকা নয়!’

রোসিয়া ১ টিভি চ্যানেলের এমন পুতিন বন্দনায় খুশি নন সমালোচকরা। তারা মন্তব্য করেছেন, রোসিয়া ১ টিভি চ্যানেলটি পুতিন বন্দনায় সবাইকে ছাড়িয়ে গেছে। তারা পুতিনের এতো সব খবর প্রচার করেছে যে নতুন করে পুতিনের ওপর প্রচার করার মতো বিশেষ কিছু তাদের হাতে থাকার কথা না। গত নির্বাচনে সব প্রার্থীর তুলনায় পুতিনের খবর প্রচারে সবচেয়ে বেশি এয়ার টাইম বরাদ্দ করেছিল টেলিভিশন চ্যানেলটি।সূত্র : বাংলা ট্রিবিউন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here