ফ্লোরেন্সের আঘাতে যুক্তরাষ্ট্রে নিহত বেড়ে ১১

0
197

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ক্যারোলিনায় ভয়াবহভাবেই আঘাত হেনেছে হারিকেন ফ্লোরেন্স। সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে অন্তত ১১ জন। নিহতদের মাঝে একজন শিশুও রয়েছে। খবর: সিএনন
এছাড়াও গত শুক্রবার সকালে ফ্লোরেন্সের আঘাতের পর এখনো আবহাওয়া গম্ভীর। থেমে থেমে হচ্ছে বৃষ্টি। আবহাওয়ার পূর্বাভাসেও সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

ফ্লোরেন্সের আঘাতে পানির নিচে চলে গিয়েছে উপকূলবর্তী বেশকিছু এলাকা। এছাড়া হাজার হাজার ঘর-বাড়ি, গাছপালা ভেঙ্গে পড়েছে। সৃষ্টি হয়েছে ভূমিধ্বসও। এছাড়া উত্তর ক্যারোলিনার বহু এলাকা বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় ৫ লক্ষ মানুষ।

শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ১৫ মিনিট নাগাদ উত্তর ক্যারোলিনার রাইটসভিলে বিচে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৫০ কিলোমিটার গতিতে আঘাত হানে হারিকেন ফ্লোরেন্স। এর প্রভাবে উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে ইতোমধ্যে জলোচ্ছ্বাস দেখা দেয়।

নর্থ ক্যারোলিনার গভনর রয় কুপার বলেছেন, ঘুর্ণিঝড়ের ধাক্কা সামলে ঘুরে দাঁড়ানোই আমাদের সামনে ‘ধৈর্য, একসাথে কাজ এবং সাধারণ জ্ঞানের’ পরীক্ষা হতে চলেছে। এই অযাচিত দৈত্য আমাদের এত সহজে ছেড়ে দেবে না’।

ফ্লোরেন্সের প্রভাবে আগামী দু-তিনদিন উত্তর ক্যারোলিনায় প্রবল বৃষ্টি হবে বলে মার্কিন আবহাওয়া বিভাগ তার পূর্বাভাসে জানিয়েছে। ফ্লোরেন্সের আঘাত শেষ হলেও আবারও ১১০ কিলোমিটার গতিতে ঝড় হতে পারে সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর। ঝড়কবলিত এলাকার প্রায় ১৭ লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে। ফ্লোরেন্সের প্রভাবে শুক্রবার অন্তত ১৩০০ বিমান বাতিল করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here