বরিশাল-২ আসনে মনোনয়ন পাচ্ছেন সোহেল রানা!

0
173

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক সোহেল রানা। তিনি ’৭০ ও ’৮০ দশকে ঢাকাই সিনেমার পর্দা দাপটের সাথে কাঁপিয়েছেন। প্রযোজক হয়ে উপহার দিয়েছেন জনপ্রিয় বেশকিছু ছবি। তিনি ছাত্রজীবন থেকে তিনি রাজনীতির সাথে জড়িত। পর্দায় তার অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়েছেন অসংখ্য ভক্ত। এখন মাঠে নেমেছেন ভোটারের মন জয় করতে।

সোহেল রানা এবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে বরিশাল-২ (উজিরপুর-বানারীপাড়া) আসনে জাতীয় পার্টির (এরশাদ) প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র কিনেছেন। তিনি দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য। জানা গেছে, তিনি দল থেকে সবুজ সংকেত পেয়েছেন।

এ বিষয়ে সোহেল রানার সাথে যোগাযোগ করলে বর্ষীয়ান এই অভিনেতা মুখ খোলেননি। তবে তিনি জানিয়েছেন আমি নির্বাচন যেখান থেকে করি না কেনও আমি জনগণের সেবা করতে চাই। দেশের মানুষের সেবা করতে হলে কোনও আসন লাগে না। নির্বাচনের বিষয়ে তিনি বলেন, আমি মনোনয়ন কিনেছি, দল যদি আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে অব্যশই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব।

বর্ষীয়ান এই অভিনেতার ছেলে মাশরুল পারভেজ আমাদের সময় ডট কমকে জানান, ‘বাবা অফিসিয়ালি নির্বাচন করতে চাচ্ছেন। দল থেকে ইতিবাচক সংকেত দিয়েছে। আমরা গণসংযোগের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। দল থেকে মনোনয়ন পেলে আমরা আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিব। এজন্য আগামী ২৫ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’
১৯৭২ সালে চাষি নজরুল ইসলাম পরিচালিত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সিনেমা ওরা এগারো জন প্রযোজনা করেন। এর পরের বছর তিনি তার প্রযোজনায় ‘মাসুদ রানা’ একটি ছবি নির্মাণ করেন। এই ছবিতে নাম ভুমিকায় অভিনয় করেন মাসুদ রানা হয়ে। সিনেমার মাধ্যমে প্রথম সোহেল রানা নামে পর্দায় হাজির হন তিনি।

সোহেল রানা বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পরপরই বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন। প্রযোজক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন পারভেজ ফিল্মস এবং এই প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে চাষী নজরুল ইসলাম এর পরিচালনায় নির্মাণ করেন বাংলাদেশের প্রথম মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ওরা ১১ জন। এটি মুক্তি পায় ১৯৭২ সালে। অভিনেতা ও পরিচালক হিসেবে যাত্রা শুরু ১৯৭৩ সালে। কাজী আনোয়ার হোসেন এর বিখ্যাত কাল্পনিক চরিত্র মাসুদ রানা সিরিজের একটি গল্প অবলম্বনে। মাসুদ রানা চলচ্চিত্রে নায়ক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন সোহেল রানা নাম ধারণ করে এবং একই ছবির মাধ্যমে তিনি পরিচালক হিসেবে মাসুদ পারভেজ নাম ব্যবহার করেন। এই ছবিটি মুক্তির মাধ্যমে দর্শকরা তাঁকে পর্দায় দেখতে পান ১৯৭৪ সালে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here