বিশ্বে ৮ কোটি মানুষ বাস্তুহারা: জাতিসংঘ

0
53

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশন- ইউএনএইচসিআর এর এক প্রতিবেদনে  এ তথ্য জানিয়ে আরো বলা হয়েছে এক দশকের মধ্যে সংখ্যাটা প্রায় দ্বিগুণ হতে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ১ শতাংশের বেশি মানুষ এখন বাস্তুহারা। অর্থাৎ ২০১৯ সালের শেষ দিক পর্যন্ত বিশ্বের প্রতি ৯৭ জনের একজন বসত ভিটাহীন অবস্থায় জীবন-যাপন করছে। সিরিয়া ও কঙ্গো প্রজাতন্ত্র এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ইউএনএইচসিআরের প্রধান ফিলিপো গ্রান্দি এএফপিকে বলেন, “বিশ্ব জনসংখ্যার এক শতাংশ মানুষ তাদের বাসস্থানে ফিরে যেতে পারছে না। কেননা ওসব জায়গায় যুদ্ধ, নির্যাতন, মানবাধিকার লঙ্ঘন ও অন্যান্য সহিংসতা বিরাজ করছে।”

ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, গত বছরের শেষ দিক পর্যন্ত রেকর্ড ৭ কোটি ৯৫ লাখ মানুষ শরণার্থী, আশ্রয়প্রার্থী বা তথাকথিত নিজ দেশে বাস্তুহারা হিসেবে বাস করছে। বাস্তুহারাদের সংখ্যা আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে প্রায় ৯০ লাখ।

গ্রান্দি বলেন, “বাস্তুহারাদের সংখ্যা বাড়ার প্রবণতা শুরু হয়েছে ২০১২ সাল থেকে। সংখ্যাটা প্রতি বছরই আগের বছরের তুলনায় বাড়ছে। অধিক সংঘাত, সহিংসতা মানুষকে গৃহহারা করছে।”

ইউএনএইচসিআরের প্রধান জানান, বাস্তুহারাদের সংঘাত ও সংকটপূর্ণ এলাকায় ফিরে যাওয়ার মতো পরিস্থিতি নেই। অঞ্চলগুলোর ‘রাজনৈতিক সমাধান অপর্যাপ্ত’।

গ্রান্দি জানান, ১০ বছর আগে বিশ্বজুড়ে বাস্তুহারাদের সংখ্যা ছিল প্রায় ৪ কোটি। বর্তমানে তা দ্বিগুণ হয়ে পড়েছে- “এটা মূলত দ্বিগুণ হয়ে পড়েছে। বাড়ার এই প্রবণতা কমার কোনো লক্ষণ আমরা দেখছি না।”

২০২১ সালে বাস্তুহারাদের সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বাড়তে পারে বলেও পূর্বাভাস দিয়েছেন ইউএনএইচসিআরের প্রধান, “আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় খুবই বিভক্ত, শান্তি নিশ্চিতে অপারগ। এই দুর্ভাগ্যক্রমে এই পরিস্থিতি বাস্তুহারাদের সংখ্যা বাড়ার প্রবণতা থামাতে পারবে না। আগামী বছরটা নিয়ে আমি খুবই উদ্বিগ্ন। এই বছরের চেয়ে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে।”

বাস্তুহারাদের নিয়ে সবশেষ এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৪ কোটি ৬০ লাখ মানুষ নিজ দেশে বাস্তুহারা। ২ কোটি ৬০ লাখ মানুষ দেশ ছেড়ে উদ্বাস্তু জীবনযাপন করছে। আর ৪ কোটি ২০ লাখ মানুষ শরণার্থী হওয়ার চেষ্টা করছে। তিন ক্যাটাগরির বাইরে আছে ভেনেজুয়েলার প্রায় ৩৬ লাখ নাগরিক।

প্রতিবেদনে দেখা গেছে, গত বছরে বিশ্বজুড়ে নতুন করে বাস্তুহারা হয়েছে ১ কোটি ১০ লাখ মানুষ। দ্বন্দ্ব-সংঘাতপূর্ণ দেশ ও অঞ্চলগুলোতেই এর সংখ্যাটা বেশি। গ্রান্দি জানান, বিশ্বের বাস্তুহারাদের ৬৮ শতাংশই সিরিয়া, ভেনেজুয়েলা, আফগানিস্তান, দক্ষিণ সুদান ও মিয়ানমারের।

করোনাভাইরাস মহামারির ফলে বিশ্বে বাস্তুহারাদের ওপর কেমন প্রভাব পড়েছে তা অবশ্য প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here