ভাগ্য নির্ধারণ মামলার রায়ে তারেক রহমান

0
132

০০৪ সালের ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের মধ্য দিয়ে ভাগ্য নির্ধারণ হতে যাচ্ছে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের। ২১ আগষ্ট ইতিহাসের জঘন্যতম গ্রেনেড হামলার ঘটনায় দায়ের করা বিস্ফোরক ও হত্যা দু’টি মামলারই অন্যতম আসামি তারেক রহমান। খোদ তার আইনজীবীরাই বলছেন, মামলার রায় বিপক্ষে গেলে বিস্ফোরক আইনে যাবজ্জীবন এবং হতাহতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় মৃত্যুদণ্ড হতে পারে তারেক রহমানের।

তবে দুই মামলায় ১৭ বছরের কারাদণ্ডাদেশ নিয়ে লন্ডনে অবস্থানরত তারেক রহমানের ফাঁসি বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হলেও এই মুহূর্তে বড় কোনো কর্মসূচি দেবে না বিএনপি। দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে। রায় যাই হোক না কেন, এই মুহূর্তে বড় কোনো কর্মসূচি দিচ্ছে না বিএনপি। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া দেখানোর ক্ষেত্রেও সংযোমী থাকবে দলটি।

‘তারেক রহমানের সর্বোচ্চ সাজা হলে বিএনপির নেতৃত্ব কে দেবেন’— এমন প্রশ্নের জবাবে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘তো কী হয়েছে? তার সাজা তো আগেও দুই বার হয়েছে। তিনি নেতৃত্ব দিচ্ছেন না? ২১ আগস্ট মামলায় সাজা হলেও তিনি বিএনপির নেতৃত্ব দেবেন। আমাদের ম্যাডামও তো সাজা ভোগ করছেন। এগুলো আমাদের কাছে এখন আর কোনো ব্যাপার না।’ এ মামলায় তারেক রহমানের সর্বোচ্চ সাজা হলেও বিএনপির নেতৃত্ব তার হাতেই থাকবে। লন্ডন থেকে তিনিই বিএনপির নেতৃত্ব দেবেন।

এদিকে যুব দলের কেন্দ্রীয় নেতা গিয়াস উদ্দীন মামুন বলেন, ‘তারেক রহমানের রায় নিয়ে বিশেষ কোনো বার্তা যুব দলকে পাঠানো হয়নি। আমরা জানতে পেরেছি বিএনপির হাইকমান্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে, রায় ইস্যুতে বড় ধরনের কোনো কর্মসূচি দেওয়া হবে না। তবে টুকটাক মিছিল টিছিল হতে পারে।’

এদিকে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় বড় কোনো সাজা হলেও লন্ডনে বসে দল পরিচালনার সুযোগ হাতছাড়া হবে না তারেক রহমানের। নির্বাসনে থেকে এখন যেমন দল পরিচালনা করছেন, তখনও তিনি দল পরিচালনা করতে পারবেন বলেই বিশ্বাস বিএনপি নেতাদের। সূত্র: সারাবাংলা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here