মানুষের মনে ঈদের আনন্দ নেই: রিজভী

0
179

দ মানে উৎসব-আনন্দ। কিন্তু মানুষের মনে সেই আনন্দ এখন আর নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, দেশে যে ভয়াবহ দুঃশাসন ও স্বৈরশাসন চলছে, এর যাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে গোটা জাতি আজ আতঙ্কিত। অবৈধ সরকারের দুর্নীতি, লুটপাট, চাঁদাবাজিতে মানুষ অতিষ্ঠ। দ্রব্যমূল্যের বৃদ্ধির কারণে মানুষ দিশেহারা। বাড়ি ভাড়া, গ্যাস-বিদ্যুতের দাম দফায় দফায় বেড়েছে। দৈনন্দিন খরচ মেটাতে হিমশিম খাচ্ছে মধ্যবিত্ত-নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ। এরই মাঝে যোগ হয়েছে মামলা হামলাসহ নানা আতঙ্ক। এ অবস্থায় ঈদের আনন্দ মলিন হয়ে যায়।

সোমবার (২০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, শুধুমাত্র কিছু সংখ্যক আওয়ামী ভাবাপন্ন লোক হয়তো তাদের নিজেদের নিরাপদ মনে করতে পারে কিন্তু বিএনপিসহ বেশিরভাগ রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, সাধারণ মানুষ, শিক্ষক, সাংবাদিক, পেশাজীবী, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও কোমলমতি ছাত্রছাত্রীরা এখন এ অবৈধ সরকারের নানা বাহিনী দ্বারা আক্রান্ত-ক্ষতবিক্ষত।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র সরকারের প্রধান প্রতিপক্ষ হওয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলা দিয়ে বন্দি করে রাখা হয়েছে। তিনি বার বার উচ্চ আদালত থেকে জামিন পাওয়ার পরও নতুন নতুন মামলা ও অজুহাত দেখিয়ে তাকে কারাগারে আটকে রাখা হচ্ছে। এছাড়া তিনি গুরুতর অসুস্থ হওয়ার পরও তাকে চিকিৎসা না দিয়ে নানাভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে। বিএনপির লাখ লাখ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হাজার হাজার মিথ্যা মামলার খড়গ ঝুলছে। কারাবন্দি আছেন হাজারও নেতাকর্মী। প্রতিনিয়ত চলছে গুম-খুন, বিচারবহির্ভূত হত্যা আর মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার নির্যাতন। এমন পরিস্থিতিতে আসন্ন ঈদ নিয়ে মানুষের মনে কোনো আনন্দ নেই, নেই কোনো স্বস্তি।

গত এক দশকের মধ্যে ঈদ বাজারে এমন মন্দাভাব আগে কখনও দেখা যায়নি দাবি করে রিজভী বলেন, ব্যবসায়ীরা দোকানে দোকানে ঈদের সামগ্রী তুলে বিপাকে পড়েছেন। বেচা-বিক্রি বন্ধ। রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থার জন্য ঘরমুখো মানুষ প্রচণ্ড দুর্দশার মধ্যে পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান দুঃশাসনের অবসান ছাড়া দেশের মানুষের মুক্তি মিলবে না। শুধুমাত্র গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে ও সত্যিকারভাবে মানুষ তার পছন্দ অনুযায়ী জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করতে পারলেই কেবল মুক্তি মিলবে এ জাতির।

এসময় সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশেই ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে তিনদিন ধরে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন রিজভী।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, ড. মামুন আহমেদ, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ড. ওবায়েদুল ইসলাম, সহ দফতর সম্পাদক মুনির হোসেন, সহ প্রচার সম্পাদক আসাদুল করীম শাহীন, নির্বাহী কমিটির সদস্য অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম, চেয়ারপারসনের প্রেস উইং কর্মকর্তা শামসুদ্দিন দিদার প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here