মোবাইলের আলোতে রায় পড়লেন বিচারক

0
258

গ্রেনেড হামলা মামলার রায় ঘোষণার বেশিরভাগ সময়ই আদালতে বিদ্যুত ছিলনা। এতে প্রথমে মোবাইলের আলোতে রায় পড়তে হয় বিচারককে। পরে আবারও বিদ্যৎ চলে গেলে ছোট চার্জ লাইট আনা হয়। আর বিদ্যুত বার বার চলে যাওয়ায় লোকজন গরমের মধ্যে বেশ অস্বস্তিতে পড়েন। এমনকি বিচারককেও বার বার ঘাম মুছতে দেখা যায়।
বুধবার ১১টা ৩৫ মিনিটে এজলাসে বসে বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন আদেশের বিবেচ্য বিষয় সমূহ পড়ছিলেন। এর কয়েক মিনিটের মধ্যেই হঠাৎ বিদ্যুত চলে যায়। এসময় পাশে থেকে একজন মোবাইলের আলো জ্বেলে ধরলে পড়তে থাকেন বিচারক। প্রায় ৫-৭ মিনিট পর বিদ্যুত আসে। এরপর রায় পড়ার সময় ১১টা ৫২ মিনিটে আবারও চলে যায় বিদ্যুত। তবে এসময় পাশে থেকে একজন ছোট চার্জার টেবিলের পাশে রাখেন। এসময় পাশে থেকে একজন ছোট হ্যান্ড মাইক ধরে রাখে বিচারকের সামনে।
১২টা ৫ মিনিটে আসে বিদ্যুত। বিচারক রায় পড়া অব্যাহত রাখলে ১২টা ১৫ মিনিটে আবারও বিদ্যুত চলে যায়। আর বিদ্যুত আসার আগে ১২ টা ২০ মিনিটে রায় পড়া শেষ করে এজলাস ত্যাগ করেন বিচারক। এরপর একে একে সবাই বের হয়ে যায়।
এদিকে বাহিরে এসে জানা যায় আদালতে বার বার বিদ্যুত চলে গেলেও আশ-পাশে এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। এমনকি বিদ্যুত বিভ্রাটের কারনে সরকারে পক্ষের আইনজীবীদের কাউকেও বিরক্তি প্রকাশ করতে দেখা যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here