যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না করোনাকে: ডা. ফাউচি

0
30

সামাজিক দূরত্ব মানতে অনীহা এবং টেস্টিং ও আক্রান্তদের ট্রেসিংয়ের পর্যাপ্ত পরিকল্পনা ছাড়াই খুলে দেয়া হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সব রাজ্য। এর ফলে যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি রাজ্যে হঠাৎ করে বেড়েছে করোনাভাইরাস সংক্রমণের সংখ্যা। এমন পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার মার্কিন কংগ্রেসের এক শুনানিতে ডা. অ্যান্থনি ফাউচি এটাকে ‘উদ্বেগজনক’ বলে মন্তব্য করেছেন। খবর নিউইয়র্ক টাইমস,  আল জাজিরার।

কংগ্রেসের নিম্নকক্ষের এনার্জি অ্যান্ড কমার্স কমিটির ওই শুনানিতে ডা. ফাউচির পর্যালোচনাই বলে দেয় যুক্তরাষ্ট্রে করোনা পরিস্থিতি কতটা ভয়াবহ পর্যায়ে রয়েছে। করোনায় দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ২৪ লাখের বেশি মানুষ। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ২৩ হাজারের বেশি মানুষ।

গত সপ্তাহেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মন্তব্য করেন যে, টিকা ছাড়াই বিলীন হয়ে যাবে করোনাভাইরাস মহমারি। কিন্তু ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজের পরিচালক ডা. ফাউচি বলছেন, এই ভাইরাস বিলীন হবে না। যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ এই সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ শুনানিতে বলেন, দেশটিতে এখনও নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি করোনাভাইরাসকে।

হাউজ কমিটিকে ডা. ফাউচি বলেন, চলতি বছরের শেষদিকে বা আগামী বছরের শুরুর দিকে করোনার একটি টিকা আবিষ্কার হতে পারে। তবে দেশজুড়ে করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে আগামী কয়েক সপ্তাহ গুরুত্বপূর্ণ বলেও সতর্ক করে দিয়েছেন তিনি।

গত সপ্তাহান্তে ট্রাম্প বলেছিলেন যে, তিনি তার কর্মকর্তাদের করোনার পরীক্ষা কমানোর নির্দেশ দিয়েছেন। তবে ডা. ফাউচি ছাড়াও শুনানিতে অংশ নেয়া অন্য তিনজন শীর্ষ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলছেন, তাদের এমনটা করতে কোনও নির্দেশ দেয়া হয়নি।

ডা. ফাউচি ছাড়াও অন্য কর্মকর্তারা বলেন, তারা এমন কোনও নির্দেশ পাননি। বরং করোনার আরও বেশি পরীক্ষা করা হবে বলে হাউজ কমিটিকে জানিয়েছেন ডা. ফাউচি। ওই শুনানিতে সাক্ষ্য দেয়া অন্য কর্মকর্তারা হচ্ছেন- সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি), ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)-র প্রধান এবং ডিপার্টমেন্ট অব হেলথ অ্যান্ড হিউম্যান সার্ভিসের শীর্ষ একজন কর্মকর্তা। সূত্র : আরটিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here