যুবরাজকে এত কম দামে পাওয়ার আশা করেনি মুম্বাইও!

0
164

ভারতের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক যুবরাজ সিং। ২০১৫ সালে আইপিএলের নবম আসরে ১৬ কোটি রুপি দাম পেয়েছিলেন। এখনও সেটিই হয়ে আছে আইপিএলের ময়দানে কোনো ক্রিকেটারের সবচেয়ে বেশি মূল্য। অথচ সেই যুবরাজ এবারের আইপিএলে দল পাচ্ছিলেন না। গত মঙ্গলবার আইপিএলের প্রথম দফা নিলামে তিনি অবিক্রীতই দেখে যান। তাকে কিনে নিতে তখন আগ্রহ দেখায়নি কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিই। এরপর দ্বিতীয় দফা নিলামে তোলা হলে তাকে দলে নেয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। তবে সেটি মাত্র এক কোটি রুপীর বিনিময়ে!

যেখানে তারকা খ্যাতি নেই এমন তরুণ ক্রিকেটারও কোটি কোটি টাকার বিনিময়ে দল পেয়েছেন সেখানে এক কোটি রুপিতে যুবরাজের কোনোমতে দল পাওয়ার ব্যাপারটি এসেছে আলোচনায়। এবার এ নিয়ে মুখ খুলেছেন খোদ মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের কর্ণধার আকাশ আম্বানি। তিনি নিজেই জানিয়েছেন, এত অল্প দামের বিনিময়ে যুবরাজকে পাওয়া যাবে সেটি তিনি নিজেই ভাবেননি!

যুবরাজকে কোনো দল নিচ্ছিল না বলে দলে নিয়েছেন- মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিষয়টি এমনও নয়। ফর্ম পড়ে গেলেও এখনও যুবরাজকে দলটি দেখছেন বিশ্বমানের ক্রিকেটার হিসেবেই। তরুণদের বিকাশে সহায়তার আস্বাস করে সম্প্রতি আকাশ বলেন, ‘আমরা যুবরাজের ক্যারিয়ার বাচানোর জন্য দলে নেইনি। যুবরাজকে আমাদের প্রয়োজন। সে এমন একজন বিশ্বেমানের ক্রিকেটার যে সব ট্রফি জিতেছে। তাছাড়া ওনার প্রচুর অভিজ্ঞতা আছে। দলে অনেক তরুণ ক্রিকেটার আছে, তাদের সমৃদ্ধ করার জন্য যুবরাজকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেয়া হবে।’

একই দলে সুযোগ পেয়েছেন লাসিথ মালিঙ্গাও। তার মূল্যও কম। শ্রীলঙ্কার পেসার গত আসরে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের পরামর্শক হিসেবে কাজ করলেও এবার আবারও খেলোয়াড়ের ভূমিকায়। ২ কোটি রুপি মূল্য পাওয়া মালিঙ্গার পাশাপাশি যুবরাজ প্রসঙ্গে আকাশ আরও বলেন, ‘যুবরাজ এবং মালিঙ্গাকে আমরা এত কম টাকায় পেয়ে যাব ভাবিনি। সত্যি কথা বলতে যুবরাজের জন্য আমাদের আরও বাজেট ছিল। এক কোটি টাকায় তাকে পেয়ে যাওয়া আইপিএলের ইতিহাসে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here