রাখাইনে বিদ্রোহীদের হাতে মিয়ানমারের একাধিক সেনা কর্মকর্তা নিহত

0
326

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইনে সেনাবাহিনী ও আরাকান আর্মির সদস্যদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মালিকানাধীন মিয়াওয়াদি নিউজ সার্ভিস জানিয়েছে, চলতি সপ্তাহে রাখাইনের বুথিডং এবং রাথেডং টাউনশিপে ওই সংঘর্ষের ঘটনায় উভয়পক্ষেই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। খবর রেডিও ফ্রি এশিয়ার।

ওই খবরে বলা হয়, সংঘর্ষে আরাকান আর্মির চারজন সদস্য নিহত হয়। এসময় মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অফিসার এবং অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাও নিহত হয়েছেন। তবে ওই প্রতিবেদনে এর চেয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।

খবরে বলা হয়েছে, সোমবার মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তের কাছে ‘এরিয়া ক্লিয়ারিং’ অপারেশন চালানোর সময় আরাকান আর্মির সদস্যরা সেনাবাহিনীর ওই দলটির ওপর হামলা চালায়।

মিয়াওয়াদি জানায়, বুথিডংয়ের পিনচং গ্রাম এবং রাথেডংয়ের ইয়েইসোচং গ্রাম এবং রাথেডং টাউনশিপে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত লড়াই চলে।

রেডিও ফ্রি এশিয়ার মিয়ানমার সার্ভিসকে আরাকান আর্মির মুখপাত্র খাইন থুখা বলেন, আরাকান আর্মি নিয়ন্ত্রিত এলাকায় অভিযান চালানোর জন্য মিয়ানমার সেনাবাহিনী অনুপ্রবেশ করলে লড়াই শুরু হয়।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী বলছে, এই এলাকার আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাবে তারা।

আরাকান আর্মির মুখপাত্র বলেন, নাহান এবং ওয়ানাতিওন গ্রামে ৩ ডিসেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত লড়াই চলে।

খাইন থুখা বলেন, এসব সংঘর্ষ খুব তীব্র ছিল। সোমবারের লড়াই পাঁচ ঘণ্টা এবং বুধবারের লড়াই আট ঘণ্টা স্থায়ী হয়েছিল।

তিনি বলেন, গত ২৯ নভেম্বর বুথিডংয়ের উত্তরে সাইপিনচং গ্রামের কাছেও তীব্র লড়াই হয়েছে।

উল্লেখ্য, এই রাখাইনেই গত বছর আগস্টের শেষ সপ্তাহে মিয়ানমার সেনাবাহিনী অভিযান শুরু করলে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। মিয়ানমার সেনাবাহিনী তখন দাবি করেছিল, কয়েকটি নিরাপত্তা চৌকিতে আরাকান আর্মি চালালে পাল্টা জবাব দিতে তারা রাখাইনে এই গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে।  আরটিভি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here