রাষ্ট্রপতির সঙ্গে থাই দূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ

0
231

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ডের মধ্যে বিদ্যমান চমৎকার দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন আগামী দিনগুলোতে এই সম্পর্ক আরো জোরদার হবে।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে বঙ্গভবনে বাংলাদেশে থাইল্যান্ডের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত পানপিমন সুয়ানাপঙ্গসে সাক্ষাৎ করতে গেলে রাষ্ট্রপতি এ কথা বলেন।
রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন বাসস’কে বলেন, ‘বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ডের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ক আগামী দিনগুলোতে আরও দৃঢ় হবে বলে বৈঠককালে রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন।’
১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের পরবর্তীকালে বাংলাদেশের বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে থাইল্যান্ডের ভূমিকার প্রশংসা করে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, বন্ধুপ্রতিম দু’টি রাষ্ট্রের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক দিন দিন জোরদার হচ্ছে।
রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনকালে থাই রাষ্ট্রদূতের কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেন।
রাষ্ট্রদূত পানপিমন তার দায়িত্ব পালনকালে সার্বিক সহযোগিতার জন্য রাষ্ট্রপতি ও বাংলাদেশের জনগণকে ধন্যবাদ জানান।
বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের দ্রুত অগ্রগতির প্রশংসা করে বিদায়ি রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের সাথে সম্পর্ককে থাইল্যান্ড সবসময়ই গুরুত্ব দিয়ে থাকে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ডের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে তিনি তার প্রচেষ্টা অব্যহত রাখবেন।
রাষ্ট্রপতির সচিবগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

– বাসস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here