লতিফুর রহমানের জানাজা গুলশানের আজাদ মসজিদে, দাফন বনানী কবরস্থানে

0
49

দেশের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী-শিল্পপতি লতিফুর রহমান বুধবার (১ জুলাই) সকালে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে নিজ বাড়িতে মারা যান। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। অসুস্থতাজনিত কারণে কয়েকবছর ধরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের বাড়ি অবস্থান করছিলেন তিনি। ডিবিসি টিভি

লতিফুর রহমান এমন দিনে মারা গেলেন, যেদিন তার নাতি ফারাজ আইয়াজ হোসেনের মৃত্যুবার্ষিকী। ফারাজ হোসেন ২০১৬ সালের ১ জুলাই ঢাকার হোলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার ঘটনায় নিহত হন।

লতিফুর রহমান স্ত্রী, পুত্র, দুই কন্যাসহ আত্মীয়স্বজন, গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, লতিফুর রহমানের মরদেহ ঢাকায় আনা হবে। গুলশানের আজাদ মসজিদে বাদ এশা তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর রাতেই বনানী কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হবে

লতিফুর রহমানের জন্ম ১৯৪৫ সালের ২৮ আগস্ট। তিনি প্রথম আলোর পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান মিডিয়াস্টার লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন।  ট্রান্সকম গ্রুপের ফাস্টফুড, কোমল পানীয়, ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক পণ্য, ওষুধ, সংবাদপত্র, চা শিল্প, বিমা ইত্যাদি ব্যবসায়ের সঙ্গে জড়িত। তিনি ন্যাশনাল হাউজিংয়ের উদ্যোক্তা পরিচালক।

লতিফুর রহমান প্যারিসভিত্তিক বৈশ্বিক বাণিজ্য সংগঠন আইসিসির নির্বাহী সদস্য, আইসিসি বাংলাদেশের ভাইস চেয়ারম্যান; বিশ্বের বৃহত্তম এনজিও ব্র্যাকের পরিচালক। এ ছাড়া তিনি কয়েক মেয়াদে এমসিসিআইয়ের সভাপতি ছিলেন।

কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজের প্রাক্তণ ছাত্র লতিফুর রহমান চাঁদপুরে তার বাবার প্রতিষ্ঠিত ডব্লিউ রহমান জুট মিলে নির্বাহী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here