লাল-নীল-হলুদ জোনে বিভক্ত হবে বাংলাদেশ ক্রিকেট

0
23

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের কারণে মধ্য মার্চ থেকে সকল প্রকার ক্রীড়া ইভেন্ট বন্ধ রেখেছে বাংলাদেশ সরকার। সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক টুর্নামেন্ট বন্ধ রাখলেও অফিস কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তারই ধারাবাহিকতায় এবার করোনার মাঝে ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্যসহ সার্বিক খোঁজ-খবর রাখতে অ্যাপ চালু করলো বিসিবি।

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে শনাক্তের হার বিবেচনায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা লাল-হলুদ ও সবুজ জোনে ভাগ করা হয়েছে। এবার একইভাবে তিনভাগে (লাল, নীল ও হলুদ) ভাগ করা হবে টাইগার ক্রিকেটারদেরও।

খেলা বন্ধ থাকায় বাসায় থেকেই শরীর ফিট রাখতে বিসিবির দেওয়া নির্দেশনা মতো অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন টাইগার ক্রিকেটাররা। তবে ইতোমধ্যে মানবিক কাজে বাইরে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন মাশরাফি, অপু ও নাফিস ইকবাল।

টাইগার ক্রিকেটারদের করোনা আক্রান্তের খবরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মেডিকেল বিভাগ মনে করছে, ক্রিকেটারদের জন্য একটি নির্দেশিকা প্রণয়নের এটিই সেরা সময়। বিসিবি আনুষ্ঠানিকভাবে এখন পর্যন্ত কোন নির্দেশনা প্রদান না করলেও ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য বিষয়ে সার্বক্ষণিক খোঁজ রাখছে।

তারই ধারাবাহিকতায় করোনাকালে ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য বিষয়ে সার্বিক খোঁজ-খবর রাখতে এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিতে বিশেষ অ্যাপস চালু করেছে বিসিবি। ইতোমধ্যে ক্রিকেটারদের অ্যাপটির অ্যাক্সেস দেওয়া হয়েছে। অ্যাপসটিতে আপাতত জাতীয় পুলের ৪০ জন ক্রিকেটার থাকলেও এর পরিধি আরও বাড়তে পারে।

ঘরবন্দি ক্রিকেটাররা কিভাবে ফিটনেস নিয়ে কাজ করবেন বা কীভাবে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করবেন -এসব নির্দেশনা বিসিবি করোনা শুরু থেকে দিয়ে আসলেও এখন ক্রিকেটারদের শারীরিক ও মানসিক পরিস্থিতি সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করতে চাচ্ছে। মূলত সে লক্ষ্যেই বিশেষ এই অ্যাপস-এর ব্যবস্থা করেছে দেশের ক্রিকেট বোর্ড।

এ বিষয়ে বিসিবির এমআইএস (ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম) ম্যানেজার নাসির আহমেদ গণমাধ্যমকে জানান, অ্যাপসটি ১৮টি প্রশ্ন রাখা হয়েছে। এসব প্রশ্নের বেশির ভাগই কোভিড-১৯ এর উপসর্গ বিষয়ে। অ্যাপসের মাধ্যমে কে কতক্ষণ ঘুমিয়েছে, জ্বর বা ব্যথা আছে কি-না, কোভিড-১৯ রোগীর সংস্পর্শে গিয়েছিল কি-না, মানসিক অবস্থা ইত্যাদি তথ্য জানাবে ক্রিকেটাররা।

তিনি আরও জানান, প্রতিদিনের তথ্য প্রতিদিন দিতে হবে। ক্রিকেটারদের দেওয়া তথ্যে ওপর লাল, নীল, হলুদ চিহ্নিত করা হবে। প্রশ্নের উত্তর দিলে অ্যাপস নিজেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে জানিয়ে দেবে কে কোন জোনে পড়েছে। এরপর মেডিকেল বিভাগ বাকিটা দেখবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here