শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে পারের অপেক্ষায় ২০০ গাড়ি

0
157

গণমাধ্যম ডেস্ক: দক্ষিণবঙ্গের ২১টি জেলার প্রবেশদ্বার মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুট পারের অপেক্ষায় রয়েছে অন্তত ২০০ গাড়ি। নাব্যতা সমস্যা পুরোপুরিভাবে নিরসন না হলেও ঘাট এলাকায় গাড়ির এ চাপ স্বাভাবিক বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মাওয়া পুলিশ ফাঁড়ির ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. সিদ্দিকুর রহমান  জানান, ঘাট এলাকায় বর্তমানে ২০০ গাড়ি পারের অপেক্ষায় রয়েছে। এর মধ্যে পণ্যবাহী ট্রাক ও যাত্রীবাহী ছোট গাড়ির সংখ্যাই বেশি। তবে এটি শিমুলিয়া ঘাটের জন্য স্বাভাবিক বলে জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিসি’র শিমুলিয়া ঘাটের উপ-মহাব্যবস্থাপক শাহ মো. খালেদ নেওয়াজ  জানান, নৌরুটে বর্তমানে ১১টি ফেরি চলাচল করছে। নাব্যতা সংকটের কারণে চ্যানেলের মুখে ডাম্প ফেরিগুলো চালাতে সমস্যা হচ্ছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র ড্রেজিং বিভাগের বরাতে তিনি আরোও জানান, ডাম্প ও রো রো ফেরি চালানোর জন্য বর্তমান পরিস্থিতি উপযোগী। তবে নৌরুট ফেরি চালানোর বিষয়ে একই শাখার আরেকটি বিভাগ বলছে, চ্যানেলের মুখে নাব্যতা সংকটের কারণে বড় ফেরি চালানো এখনো উপযোগী নয়। এই নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বিমত স্পষ্ট।

আর বিআইডব্লিউটিএ’র মেরিন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জানান, ডাম্প ফেরি চ্যানেলে চালানোর উপযোগী কি-না সেই বিষয়ে ট্রায়াল দেওয়া হবে।

বিআইডব্লিউটিএ’র শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শক মো. সোলেমান  জানান, সকাল থেকেই যাত্রীদের চাপ লক্ষ্য করা গেছে ঘাট এলাকায়। ৮৭টি লঞ্চের মাধ্যমে যাত্রীরা পারাপার হচ্ছেন। তবে চাপ থাকলেও যাত্রীরা ভোগান্তি ছাড়াই যাতায়াত করছেন।

সিবোট ঘাটের সুপারভাইজার মো. ওয়াহিদ  জানান, সিবোট ঘাট এলাকায় যাত্রীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই সিবোটগুলো ধারণক্ষমতা অনুযায়ী যাত্রী বহন করে চলাচল করছে। তবে ঈদের যেই চাপ তা এখনও শুরু হয়নি বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here