শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী দ্বিবার্ষিক এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী

0
262

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী‘১৮তম দ্বিবার্ষিক এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী বাংলাদেশ ২০১৮’। দেশি – বিদেশী বরেণ্য শিল্পী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে শনিবার বিকেলে একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে প্রদর্শনীর উদ্বোধন ও বিজয়ী শিল্পীদের পুরস্কার প্রদান করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশ ও জাতি গঠনে শিল্প-সংস্কৃতির ব্যাপক অবদান রয়েছে। দেশের যে কোন সংকটময় মুহুর্তে সংস্কৃতিকর্মীরা সাহসী ভ‚মিকা পালন করেন।তিনি বলেন, শিল্পের সংস্কৃতির আবেদন সীমাহীন ও চিরস্থায়ী। জাতীয় সংস্কৃতির পাশাপাশি প্রত্যেকটি শিল্পকর্ম ব্যক্তির চিন্তাধারা আদর্শ প্রকাশ করে। বন্ধুত্ব ও বন্ধনের বিকাশে চারুকলার রয়েছে ব্যাপক ভ‚মিকা ।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসির উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ‘১৮তম এশীয় চারুকলা প্রদর্শনী বাংলাদেশ ২০১৮’ এর পর্যবেক্ষক প্রফেসর এমিরেটাস তেতসুইয়া নোদা। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ একটি ডাকটিকেট অবমুক্ত করেন। আলোচনা শেষে রাষ্ট্রপতি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করার পাশাপাশি আর্ট গ্যালারিও ঘুরে দেখেন।  প্রদর্শনীতে দেশ-বিদেশের দুই ক্যাটাগরিতে ৯ ব্যক্তিকে চারুকলায় তাদের অসাধারণ অবদানের জন্য পুরস্কৃত করা হয়। পুরস্কার প্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন জুরি বোর্ডের সভাপতি শিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ।

এ প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী দেশগুলো হচ্ছে- বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভুটান, চীন, জাপান, কোরিয়া, ভিয়েতনাম, লাওস, আফগানিস্থান, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, মঙ্গোলিয়া, পেরু, স্পেন, ইতালি, আয়ারল্যান্ড, মিশর তুরস্ক, ইরান, কেনিয়া, রাশিয়া, ইউক্রেন ও জার্মানি।  সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এ প্রদর্শনীর আয়োজন করছে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি। প্রদর্শনীতে পেইন্টিং, প্রিন্ট, ফটোগ্রাফি, ভাস্কর্য, ইলাস্ট্রেশন, পারফর্মিং আর্ট, নিউ মিডিয়াসহ বিশ্বের ৬৮টি দেশের ৪৬৫ জন শিল্পীর ৪৮৩ টি দ্বিমাত্রিক ও ত্রিমাত্রিক শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পযর্ন্ত প্রদর্শনীটি সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here