শ্রী কৃষ্ণ প্রেম ও বিপ্লবের এক ঈশ্বর

0
1162

 

শ্রী কৃষ্ণের আজ জন্মদিন গেল। এই একজন ঈশ্বর যিনি কালো বর্ণের। বিশ্বের প্রায় সাড়ে ৪ হাজার ধর্মের সাড়ে ৪ হাজার ঈশ্বর রয়েছেন। এরমধ্যে কৃষ্ণই কালো। এর বাইরে তিনি এমন একজন ঈশ্বর যার বন্ধু আছে। বন্ধুর জন্য নিবেদিত তিনি। তিনি গান করেন, নাচ করেন, বাঁশি বাজান। শুধুই প্রেম । উনি মানুষের বিচার আচার নিয়ে বসে থাকেন না। মানুষের প্রেম নিয়ে এই প্রথম একজন ঈশ্বর মানুষের মাঝে এসেছেন। যেন ঘরের লোক। বাংলা দেশের ছেলে শ্রী চৈতণ্য এই প্রেমকে ছড়িয়ে দিয়েছেন সবখানে। মানুষকে কৃষ্ণ প্রেমে মাতিয়েছেন। বিশ্বের আর কোথাও এমন প্রেমময় ধর্ম প্রচার কখনো হয়নি। বাঙ্গালীর বাউল বা বাংলার প্রতিটি মানুষ বিরহে তো রাধা- কৃষ্ণকেই স্মরণ করে। এই প্রেমের একটি বিপ্লবী বিশ্বজনিন রূপও তো রাধা কৃষ্ণ। বিপ্লবী রূপটি হলো পরকীয়া প্রেম। বৈষ্ণব রসশাস্ত্রে রূপ গোস্বামী বলেছেন, পরকিয়ার সঙ্গে কৃষ্ণের অধিক আনন্দ। ইহাতে ক্রীড়া করেন গোবিন্দ। সকলের শ্রেষ্ঠা হয় পরকীয়া নারী। তার ভাষায় আপন মহিমা তার কহেন শ্রী হরি। বিশ্বের বিশাল সাহিত্য ভান্ডারে সীতা, হেলেন, জুলেখা সবইতো পরকিয়া। ইতালির মহাকবি দান্তের ডিভাইন কমেডিতে ফ্রাঞ্চেস্কা প্রেমে পরেন স্বামির অনুজ পাওলের সঙ্গে। পারস্যের মহাকবি, ফেরদৌসির শাহনামায় সম্রাট কাউকা্ওসের মহিষী সওদাবা তার সতিন পুত্র সিয়াউসের প্রতি আসক্ত হন। আজিজ মিশরের স্ত্রী জুলেখা বিবি আসক্ত হয়ে পরেন নবী ইউসুের প্রতি। পরে তাদের বিয়েও হয়।এই পরকিয়া অবশ্য মিলনান্তক। কখনো অবশ্য পরকিয়া মর্মান্তিকও হয়, যেমন কার্ল মার্কসের কন্যা ইলিনর যখন জানতে পারেন তার স্বামী অন্যের প্রতি আসক্ত তখন তিনি আত্মহত্যা করেন। কৃষ্ণের রাধা কি এমনি কোন অভিমানে আত্মহত্যা করেছিলেন বা আত্মগোপন করেছিলেন। জানি না । বৈষ্ণব কবিরা রাধার কোন খোঁজ আমাদের দেননি। শুধু এই গানটি রয়েছে, রাধার বিরহের, না পোড়াইও রাধা অঙ্গ না ভাসাই ও জলে। মরিলে বাঁধিয়া রাইখো তমালের ডালে।
সব শেষে তবুও বলি শ্রী কৃষ্ণইতো প্রেম। তাইতো সুনামগঞ্জের হাউরের কবি রাধারমণ দত্ত গেয়ে উঠেন, ভ্রমর কইও গিয়া শ্রী কৃষ্ণ বিচ্ছেদের অনলে অঙ্গ যায় জ্বলিয়া।

বিশ্বজিৎ দত্ত

নিবার্হী সম্পাদক, আমাদের অর্থনীতি

(ফেসবুক থেকে নেওয়া)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here