সব ধরনের শিল্পপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে ব্যবসায়ীদের অনুরোধ

0
38

করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ থাকা পোশাক কারখানাসহ সব ধরনের শিল্পপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে সরকারের প্রতি আবারও অনুরোধ জানিয়েছে শিল্প উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ নেতারা।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সঙ্গে বৈঠক করে এই অনুরোধ জানান তারা। সাক্ষাৎ শেষে বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি ফারুক হাসান ও ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ড্রাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন সাংবাদিকদের এই তথ্য জানিয়েছেন।

২০২০ সালের মার্চে প্রথম দফায় লকডাউন ঘোষণার সময়ও পোশাক কারখানাগুলো শতভাগ বন্ধ করতে হয়নি। করোনা মহামারির দেড় বছর পেরিয়ে গেলেও কয়েকদফা বিধিনিষেধের কোনো পর্যায়ে কারখানা বন্ধ রাখতে হয়নি। কিন্তু এবার সংক্রমণের ভয়াবহতম পরিস্থিতির কারণে গত ২৩ জুলাই থেকে শুরু হওয়া লকডাউনে শিল্প-কারখানাও বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। এর ফলে রপ্তানিপণ্য যথাসময়ে পাঠাতে পারা নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন তৈরি পোশাক শিল্প মালিকরা। তাই শিল্প উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ নেতারা কারখানা চালু রাখার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সঙ্গে বৈঠক শেষে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, আমরা মন্ত্রিপরিষদ সচিবের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলাম। যে লকডাউন চলছে তা থেকে সব ধরনের শিল্প-কারখানা যেন আওতার বাইরে রাখা হয়, সে অনুরোধ করতে এসেছি। শুধু পোশাক কারখানাই নয়, সব শিল্পপ্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতির জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন এবং দ্রুত সিদ্ধান্ত দেবেন বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব তাদের আশ্বস্ত করেছেন বলেও জানান তিনি।

সাক্ষাৎ শেষে এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, শিল্প-কারখানা বন্ধ থাকলে সাপ্লাই চেইনটা ভেঙে যাচ্ছে। তাই ইন্ডাস্ট্রি খুলে দিতে আমরা সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছি।

এফবিসিসিআই সভাপতি আরও বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক অনেক দেশের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছি। এই সময় যদি লকডাউনে সবকিছু বন্ধ রাখি তাহলে বাজার হারানোর একটা শঙ্কা থাকবে।

বৈঠকে এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি ও বিজিএমইএ সভাপতি ছাড়াও বিকেএমইএ, বিটিএমএ ও ঢাকা চেম্বারসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here