সমকাল কার্যালয়ে গোলাম সারওয়ারের মরদেহ

0
149

গণমাধ্যম ডেস্ক: প্রিয় কর্মস্থলে এসেছেন তিনি। সকালে, নয়টা বাজার কিছুটা আগেই। যেখানে কাজ করতে করতেই মৃত্যুর সাধ ছিলো তার। যেখানে কাজ করতে করতেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। আবার সেখানে ফিরেছেন। তবে হাস্যেজ্জ্বল মুখায়বে নয়, নিথর দেহে। হিমঠাণ্ডা শব শকঠে চড়ে।

বৃহস্পতিবার (১৬ আগস্ট) সকাল পৌনে ৯টায় সমকাল কার্যালয়ে আনা হয় পত্রিকাটির প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক গোলাম সারওয়ারের মরদেহ। তাকে আনা হয় তার প্রিয় কর্মস্থল সমকালের তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল কার্যালয়ে। তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন সমকাল পরিবারের সদস্যরা।

সকাল ১০টায় সমকাল কার্যালয় সংলগ্ন বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের ওসামানী হল মাঠে গোলাম সারওয়ারের তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

সদ্য প্রয়াত সমকাল সম্পাদক ও বাংলাদেশ সম্পাদক পরিষদের সভাপতি গোলাম সারওয়ারকে বৃহস্পতিবার আসরের নামাজের পর মিরপুরের বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

এর আগে বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তার মরদেহ রাখা হবে শ্রদ্ধা জানানোর জন্যে। সেখানে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ব্যবস্থাপনায় সর্বস্তরের মানুষ সাংবাদিক সমাজের শিক্ষকখ্যাত কিংবদন্তিতুল্য গোলাম সারওয়ারের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন।

এরপর দুপুর ১টায় তার মরদেহ নেওয়া হবে জাতীয় প্রেসক্লাবে। সেখানে তার সহকর্মীরা গোলাম সারওয়ারকে শেষ বিদায় জানাবেন। রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা গোলাম সারওয়ারকে তার প্রিয়স্থান প্রেসক্লাব চত্বরে বিদায়ী রাষ্ট্রীয় সম্মাননা জানানো হবে।

বাদ জোহর প্রেস ক্লাবে তার চতুর্থ জানাজা অনুষ্ঠিত হবে বলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন সমকালের প্রধান প্রতিবেদক লোটন একরাম।

গত ২৯ জুলাই অসুস্থ হয়ে রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি হন ৭৫ বছর বয়সী গোলাম সারওয়ার। তার অবস্থার অবনিত হলে গত ৩ আগস্ট সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়।

গত ১৩ আগস্ট বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা ২৫ মিনিটে সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন চিকিৎসাধীন গোলাম সারওয়ার।

পরে মঙ্গলবার (১৪ আগস্ট) রাত ১০টা ৫০ মিনিটে সিঙ্গাপুর থেকে দেশে আসে একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক গোলাম সারওয়ারের মরদেহ।

বিমানবন্দর থেকে মঙ্গলবার মধ্যরাতে মরদেহ নেওয়া হয় তার উত্তরার বাসভবনে। সেখান থেকে রাত পৌনে ১টায় মরদেহ নেওয়া হয় বারডেমের হিমঘরে।

বুধবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে গোলাম সারওয়ারের মরদেহ হেলিকপ্টারে করে নিয়ে যাওয়া হয় তার জন্মস্থান বরিশালের বানারীপাড়ায়।

সেখানে তার প্রথম জানাজার পর বিকলেই মরদেহ ঢাকায় ফিরিয়ে আনা হয়। বাদ আসর উত্তরা-৪ নম্বর সেক্টর জামে মসজিদে তার দ্বিতীয় জানাজার পর মরদেহ রাখা হয় বারডেমের হিমঘরে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here